মিঠুন পুত্র ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ,জোর করে গর্ভপাতের অভিযোগ!

মিঠুন পুত্র ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ,জোর করে গর্ভপাতের অভিযোগ!

নজরবন্দি ব্যুরো: মিঠুন পুত্র ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ,জোর করে গর্ভপাতের অভিযোগ! সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তী এবার মুম্বই পুলিশের নজরে। মিঠুন চক্রবর্তীর পুত্র মহাক্ষয় ওরফে মিমোর বিরুদ্ধে সহবাস থেকে শুরু করে প্রতারণা এবং সর্বোপরি ধর্ষণের মতন নানা ঘটনার কারণে অভিযোগ করেছেন একজন বলিউড এবং ভোজপুরি অভিনেত্রী। মিঠুন চক্রবর্তীর স্ত্রী যোগিতা বালির বিরুদ্ধেও নির্যাতিতাকে ভয় দেখানোর অভিযোগও উঠেছে। ওই অভিনেত্রী মুম্বইয়ের ওশিওয়াড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুনঃ ফের আগুন বউবাজারের এলআইসি বিল্ডিং এ। অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার ৩।

বলিউড এই অভিনেত্রী বলেছেন, ‘২০১৫ সালে মিমোর সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। কিছুদিনের মধ্যেই এই সম্পর্ক আরও বেশি গভীর হয়। সম্পর্কের সমীকরণ একেবারেই পালটে যায়। এরপর একদিন মিমো তাঁকে বাড়িতে ডেকে পাঠায়। মাদক মিশ্রিত ঠান্ডা পানীয় খেতে দেন তিনি। ওই তরুণী অস্বস্তি বোধ করায় প্রায় অচৈতন্যই হয়ে পড়েন। তাঁর অমতে সেই সুযোগে মিমো শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করেন।’

এরপর চার বছর তাঁদের সম্পর্ক ছিল। এমনকি বিয়ের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন অভিনেতা। এই চার বছরে বারবার যৌন মিলনের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন তরুণী। এরপর এই কথা মিমোকে জানান তিনি। মিমো তাঁকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত নেন মিঠুন পুত্র। তরুণীকে এর জন্য চাপ দিতে থাকেন তিনি। তবে এই কাজের জন্য রাজি হননি অভিনেত্রী। তাঁকে না জানিয়ে ওষুধ খাওয়ানোরও চেষ্টা করেন মিমো। তাঁর গর্ভপাত করিয়েছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

 মিঠুন পুত্র ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ,জোর করে গর্ভপাতের অভিযোগ! মিঠুন চক্রবর্তীর পুত্র মিমো ২০১৮ সালে বিয়ে করেন। সেই সময় ওই তরুণী ধর্ষণের মামলা দায়ের করার চেষ্টা করেন। তবে সেই সময় পুলিশ তাঁর অভিযোগ নেননি। এরপর দিল্লিতে চলে যান তিনি। দিল্লির একটি আদালতে আবারও মামলা করেন। সেই অনুযায়ী এবার ওশিওয়াড়া থানায় মা এবং ছেলের বিরুদ্ধে মুম্বাই পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।মুম্বই পুলিশ বিষয়টিকে খতিয়ে দেখছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x