ফের করোনা সংক্রমন বাড়তে শুরু করল রাজ্যে। ভোট বঙ্গে আসছে দ্বিতীয় ঢেউ?

ফের করোনা সংক্রমন বাড়তে শুরু করল রাজ্যে। ভোট বঙ্গে আসছে দ্বিতীয় ঢেউ?

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ফের করোনা সংক্রমন বাড়তে শুরু করল রাজ্যে। গবেষকরা জানিয়েছেন করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যখন তখন আসতে পারে তাই সবাইকে সামাজিক দূরত্ব এবং মাস্ক পরা বজায় রাখতে হবে। অন্যদিকে ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র সরকার লকডাউন জারি করেছে একাধিক জায়গায়। কেন্দ্র সতর্কতা জারি করেছে ৫টি রাজ্যে। তারই মাঝে ভোট বাংলায় ফের বাড়ল করোনা ভাইরাসের সংক্রমন।

আরও পড়ুনঃ পাশ করেছি, চাকরি কই? পুলিশি বাধা টপকে শিক্ষামন্ত্রীর বাড়িতে হবু শিক্ষকরা।

দেশে করোনার নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত হিসেবে ছয় জনের হদিশ মিলেছে। সোমবার এই ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। মন্ত্রক সূত্রে খবর, ব্রিটেন স্ট্রেনে আক্রান্ত হিসেবে দেশে ১৮৭ জনের হদিশ মিলেছে। ৫ জন দক্ষিণ আফ্রিকান স্ট্রেন আর ১ জন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রেনে আক্রান্ত। এদিকে রাজ্যের হাতে গোনা জেলা বাদ দিয়ে সব জেলাতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ধরা পড়েছে। রাজ্যের ২৩ টি জেলার মধ্যে ২ টি জেলায় এদিন কোন সংক্রমন ধরা পড়েনি। জেলাগুলি হল পশ্চিম মেদিনীপুর এবং দক্ষিন দিনাজপুর। আজকের বুলেটিনে রাজ্য সরকার জানিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায় কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগণাতেও বেড়েছে সংক্রমন।

ফের করোনা সংক্রমন বাড়তে শুরু করেছে রাজ্যে। রাজ্য সরকারের বুলেটিন অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্য জুড়ে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮৯ জন। যা গতকালের থেকে অনেকটাই বেশি। আজকের ১৮৯ জন কে নিয়ে রাজ্যে সার্বিক ভাবে মোট আক্রান্ত সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লক্ষ ৭৪ হাজার ৯৯ জন। আশার কথা হল, এই বিপুল আক্রান্তের মধ্যে এখন চিকিৎসাধীন রয়েছেন মাত্র ৩ হাজার ৩৯৯ জন। তবে রাজ্যে দ্রুত বাড়ছে সুস্থতার হার, কমছে মৃত্যুর গতিও।

মৃত্যু সংখ্যায় রাজ্যকে ভোগাচ্ছিল কো-মর্বিডিটি! এখন সেটা নিয়ন্ত্রনে। এখন পর্যন্ত রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ২৫৩ জনের। মৃত ১০ হাজার ২৫৩ জনের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় মারা গিয়েছেন মাত্র ২ জন। অন্যদিকে গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২২৮ জন। আজকের ২২৮ জন কে নিয়ে এখন পর্যন্ত রাজ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ৬০ হাজার ৪৪৭ জন।

এদিনের বুলেটিনে রাজ্য সরকার জানিয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসের টেস্ট হয়েছে মোট ১৮ হাজার ৩০২ টি। এখন পর্যন্ত রাজ্যে মোট টেস্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৪ লক্ষ ৬২ হাজার ৮০৯ টি। ১০০ টি টেস্ট পিছু রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৬.৭৮ শতাংশ। রাজ্য জুড়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৯৭.৬২ শতাংশ মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x