জমি দখল নিয়ে অর্মত্য সেনকে ফের কটাক্ষ করলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।

জমি দখল নিয়ে অর্মত্য সেনকে ফের কটাক্ষ করলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।
Vice-Chancellor Vidyut Chakraborty once again sneered at Armatya Sen.

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিশ্বভারতী মঙ্গলবার নোবেল বিজয়ী অমর্ত্য সেনকে শান্তিনিকেতনে একটি জমির প্লটের কিছু অংশ তাদের হাতে হস্তান্তর করার আহ্বান জানিয়েছে। তাঁরা দাবি করেছে যে তিনি জোর করে জমির এই অংশটি দখল করে রেখেছেন।

আরও পড়ুনঃ ‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল

14 11

কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রারের স্বাক্ষর করা একটি চিঠিতে বলা হয়েছে, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদের বাসভবন এমন একটি এলাকায় নির্মিত হয়েছে, যেখানে অতিরিক্ত ১৩ ডেসিমেল জমি জড় করে অধিগ্রহণ করেছেন তিনি। এটি তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সেনের নিযুক্ত সার্ভেয়ার বা অ্যাডভোকেটের সঙ্গে মিলে জমির জরিপ করতে প্রস্তুত যদি তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবিগুলি যাচাই করতে চান।

জমি দখল নিয়ে অর্মত্য সেনকে ফের কটাক্ষ করলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।

আর এই নিয়ে নাম না নিয়ে সেন কে কটাক্ষ করলেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “শান্তিনিকেতনের জমি দখল করে রাখলেই রাবীন্দ্রিক। উপাচার্যকে গালিগালাজ করলেই রাবীন্দ্রিক। অন্যায় করলে রাবীন্দ্রিক। বিশ্বভারতীকে অপমান করতে পারলে সেই ব্যক্তিও রাবীন্দ্রিক।” তাঁর আরও সংযোজন,

জমি দখল নিয়ে অর্মত্য সেনকে ফের কটাক্ষ করলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।

জমি দখল নিয়ে অর্মত্য সেনকে ফের কটাক্ষ করলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।

“বিশ্বভারতীতে উচ্চশিক্ষিত মানুষ যেমন আছেন, সেরকমই অশিক্ষিত মানুষও আছেন। অল্পশিক্ষিত মানুষ তো সবচেয়ে বেশি ক্ষতিকারক। তাই তাঁদের কাছে রাবীন্দ্রিক শব্দের সঠিক অর্থ পাবেন না।” বিদ্যুৎ চক্রবর্তী আরও বলেন, “শান্তিনিকেতনে বসবাসকারী রাবীন্দ্রিক মানেই স্বার্থসিদ্ধির সোপান।” সবমিলিয়ে এদিন ফের একবার নাম না করে নোবেলজয়ী অর্মত্য সেনকে নিশানা করেছেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য।