‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল

‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল
Kuntal made explosive comments about recruitment corruption

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আকাশের মতো ষড়ষন্ত্র! নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত তৃণমূলের যুবনেতা কুন্তল ঘোষকে হাসপাতালে স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য আনা হলে, এমনই বলেন তিনি। পাশাপাশি দাবি, তিনি শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় নামে কাউকে চেনেন না। নিউ টাউনের ফ্ল্যাটে টাকার লেনদেন হয়নি বলেও দাবি ধৃত যুবনেতার।

আরও পড়ুনঃ বেকারদের মাসিক ভাতা থেকে ল্যাপটপ, মেঘালয়ের নির্বাচনী ইস্তাহারে কল্পতরু তৃণমূল

গতকাল ১২ ঘণ্টার ম্যারাথন জেরার আজ ফের তাপস মণ্ডল ও কুন্তল ঘোষকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরার সম্ভাবনা রয়েছে। সূত্রের খবর, ইডির তদন্তকারী আধিকারিকদের সঙ্গে বারংবার বচসায় জড়িয়ে পড়ছেন কুন্তল ঘোষ। আজ বুধবার তাঁকে হাসপাতালে আনা হয় স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য। সেখানে ঢোকা এবং বেরনো, দু’বারই তিনি বলেন, ‘‘আকাশের মতো ষড়যন্ত্র’’ (‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’)।

‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল

কিন্তু কেন তিনি এই কথা বলছেন তা খোলসা করেননি। জানা যায়নি কে করছে ষড়যন্ত্র, তা-ও। বুধবার কুন্তলের আরও দাবি, তিনি শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়কে চেনেন না। যদিও ইডি সূত্রে খবর, শান্তনুকে চিনতেন কুন্তুল। নিউ টাউনের ফ্ল্যাটে টাকার লেনদেন হয়নি বলেও দাবি করেছেন ধৃত তৃণমূলের যুবনেতা। ইডি সূত্রে খবর, নিয়োগ দুর্নীতিতে ১৯ কোটি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন কুন্তল।

ওই দুর্নীতিতে শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় নামে একজনের নাম উঠে আসছে। তিনিও হুগলির এক তৃণমূল নেতা। কুন্তল ঘোষের বাড়ি থেকে একটি ডাইরি উদ্ধার হয়েছে। সেই ডাইরিতে রয়েছে সাংকেতিক ভাষায় লেখা কিছু তথ্য। ইডির দাবি, ওই ডাইরি থেকে টাকার লেনদেন ও প্রভাবশালীদের সম্পর্কে অনেক কিছু জানা যেতে পারে।

‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল

কিন্তু ইডি সূত্রে খবর, কুন্তলকে যখনই ওই দুর্নীতির সঙ্গে কোনও প্রভাবশালীর জড়িয়ে থাকার কথা জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে তখনই তিনি বিভিন্ন লোকজনের নাম করে প্রভাবশালীদের আড়াল করতে চাইছেন। উল্লেখ্য, শনিবার সকালে গ্রেফতার করা হয় কুন্তলকে।

‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’ নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে এবার বিস্ফোরক কুন্তল

তাঁর গ্রেফতারির দু’দিন পর কুন্তলের স্ত্রী সংবাদমাধ্যমে দাবি করেছিলেন, নিউটাউনের যে দু’টি ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়েছিল ইডি, তার একটিতে দীর্ঘ দিন থাকতেন তাপস। ফ্ল্যাটে তার প্রমাণও আছে বলেও দাবি করেছিলেন কুন্তলের স্ত্রী জয়শ্রী। যদিও জয়শ্রীর দাবি উড়িয়ে তাপসের দাবি ছিল, ওই ফ্ল্যাটে তাঁর আনাগোনা ছিল ঠিকই কিন্তু কোনও দিন থাকেননি।