১১ লক্ষ ছাড়াল সংক্রমণ, লকডাউনের ইঙ্গিত দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের ফোন প্রধানমন্ত্রীর।

১১ লক্ষ ছাড়াল সংক্রমণ, লকডাউনের ইঙ্গিত দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের ফোন প্রধানমন্ত্রীর।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ১১ লক্ষ ছাড়াল সংক্রমণ, লকডাউনের ইঙ্গিত দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের ফোন প্রধানমন্ত্রীর।দেশজুড়ে কার্যত মাত্রাছাড়া সংক্রমণ ঘটছে করোনা ভাইরাসের। অবস্থা এমনই যে আমেরিকার পর ভারতই হতে চলেছে করোনা ভাইরাসের ইপি সেন্টার। শুধুতাই নয় আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে ভারত করোনা আক্রান্তের শীর্ষে পৌঁছে যাবে।

আরও পড়ুনঃ করোনায় প্রয়াত রাজ্যের ক্যান্সার চিকিৎসার পথিকৃৎ ডাক্তার অভিজিৎ বসু

এই বিষয়ে ভারতীয় জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রেসিডেন্ট তথা আইসিএমআর‘এর কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক কে. শ্রীনাথ রেড্ডি জানিয়েছেন, প্রতিদিন যেভাবে দেশে করোনার জীবাণু ছড়াচ্ছে তাতে সরকার যদি আরও কড়া পদক্ষেপ গ্রহন না করে তাহলে ফল আরও ভয়ানক হবে। শুধু সরকারই নয় করোনা সম্পর্কে সাধারণ মানুষজনকে হতে হবে আরও সচেতন মানতে হবে সরকারি নিষেধাজ্ঞা তবেই কিছুটা হলেও রোধ করা যাবে করোনার প্রকোপ।

দেশজুড়ে গতকাল  COVID-19 আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৩৯ হাজার মানুষ। যার জেরে মোট সংক্রমণ সকালেই পৌঁছে গিয়েছিল পৌনে এগারো লক্ষে।আজ ১৯ জুলাই রবিবার সকাল পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছিলেন মোট ১০,৭৭,৬১৮ জন। মৃত্যু হয়েছিল ২৬,৮১৬ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬,৭৭,৪২৩ জন। ভারতে সকাল পর্যন্ত অ্যাকটিভ কেস ছিল ৩,৭৩,৩৭৯। আগেরদিন সকাল ৯টা থেকে আজ সকাল ৯টা ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩৮,৯০২ জন। কিন্তু সকাল নটা থেকে রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত যা সংক্রমণের গতি তাতে অচিরেই ভেঙে যাবে গতকালের রেকর্ড।

১১ লক্ষ ছাড়াল সংক্রমণ, এই মুহুর্তে ভারতে সংক্রামিতের সংখ্যা পেরিয়ে গিয়েছে ১১ লক্ষ। সার্বিক ভাবে সংখ্যা টা হল ১১ লক্ষ ১০ হাজার ৪২১ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬ লক্ষ ৯৪ হাজার ৮৩। এই মুহুর্তে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩ লক্ষ ৮৮ হাজার ৫০৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ৪২৮ জনের। এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী এদিন ফোনে বৈঠক করলেন দেশের একাধিক মুখ্যমন্ত্রীর সাথে। প্রধানমন্ত্রী এদিন ফোনে কথা বলেন বিহার, আসাম, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, তামিলনাড়ু, হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীদের সাথে। ফোনে করোনা আগ্রাসন নিয়ে দীর্ঘ্য আলোচনা হয়।

সূত্রের খবর প্রধানমন্ত্রী খুব দ্রুত দেশের বাকি রাজ্য গুলির সাথেও ফোনে কথা বলবেন এবং তারপর আনলক বন্ধ করে লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে পারেন। তবে সূত্র জানাচ্ছে দেশ কে পুরোপুরি লকডাউন করা হবে না। দেশের যে এলাকা গুলো হটস্পট এবং কন্টেন্মেন্ট জোন সেই এলাকাগুলি কে সম্পূর্ণ লকডাউন করা হবে। গ্রিন জোন ছাড়া অরেঞ্জ জোনের শর্তসাপেক্ষে বহাল থাকবে লকডাউন। সূত্রের খবর করোনার চেন ভাঙতে প্রয়োজনে সেনা নামিয়ে ১০০ শতাংশ লকডাউন কার্যকর করার ভাবনা নিতে পারে কেন্দ্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x