বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন রুদ্রনীল ঘোষ।

বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন রুদ্রনীল ঘোষ।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন রুদ্রনীল! জল্পনা আরও বাড়ল। রাজনীতিতে সক্রিয় ভাবে কাজ করতে চান, শুধু সময়ের অপেক্ষা। এই নিয়ে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে কথা হয়েছে তাঁর এদিন এমনটাই জানান তিনি। অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ বলেন, এক বন্ধুর জন্মদিনে প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তাঁর দেখা হয়েছিল। সেখানেই দু’জনের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ কথা হয়।

আরও পড়ুনঃ শুভেন্দুকে ক্ষমা চাইতে ৩৬ ঘণ্টা সময়, আইনি নোটিশে কুরুচিকর আক্রমণের জবাব অভিষেকের।

অনেকদিন ধরেই মানুষের জন্য কাজ করছেন। এবার সক্রিয়ভাবে সেই কাজ করতে চান বলে জানান রুদ্রনীল। শুধুমাত্র বিজেপিই নয়, কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও দলে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে তাঁর প্রস্তাব এসেছিল। তবে রাজনীতিতে নামার আগে তাঁর অভিনয় জগতে অপূর্ণ থাকা কিছু তিনি সম্পন্ন করতে চান। টলিউডের পাশাপাশি বলিউডের ‘ময়দান’ সিনেমার কিছু কাজ বাকি রয়েছে তাঁর। সেগুলি আগে তাঁকে সম্পূর্ণ করতে হবে। তবে সিদ্ধান্ত নিতে খুব একটা দেরি হবে না বলেই জানান রুদ্রনীল।

সূত্রে খবর, আগামী মাস থেকলই সক্রিয় ভাবে রাজনীতিতে বামতে পারেন রুদ্রনীল। জানুয়ারি মাসের শুরুতে অভিনেতার সঙ্গে দেখা করেন বিজেপির যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক শঙ্কুদেব পণ্ডা। আর সেই সাক্ষাৎ-এই শঙ্কুই রুদ্রনীলকে বিজেপিতে যোগদানের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। প্রসঙ্গত, অভিনয়ের শুরু থেকেই তিনি রাজনীতি সচেতন মানুষ। ছাত্রজীবন থেকেই বামপন্থী দলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তবে সিঙ্গুর আন্দোলনের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর সখ্যতা তৈরি হয়।

মুখ্যমন্ত্রীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে কয়েক বছর আগে তৃণমূলে যোগ দেন তিনি৷ এরপর তৃণমূলের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা যায়। তবে ২০১৯ -শে শুরু হয় দলের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব। তারপর প্রায় বছর দেড়েক সক্রিয় রাজনীতিতে দেখা যায়নি রুদ্রনীলকে। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে বিজেপির দিকেই ঝুঁকে আছেন টলিপাড়ার এই তারকা। বৃহস্পতিবারই তাঁর মন্তব্যে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা আরও স্পষ্ট হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x