Hair Fall Solution: বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?
বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? বর্ষাকাল মানেই চুলের সমস্যা। চুলে চিরুনি দেওয়াই যেন মুশকিল। বর্ষাকাল এলেই চুল কেমন যেন নিষ্প্রাণ হয়ে যায়। বেড়ে যায় চুলের ডগা ফাটার সমস্যাও। চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়াতে গেলেই উঠে আসে গোছা গোছা চুল। এই সময় চুল নিয়ে সকলেই প্রায় কম বেশি সমস্যায় ভোগেন। ডাক্তারের মতে দিনে ৫০ থেকে ১০০টা চুল পড়া চিন্তার নয়। কিন্তু তার বেশি চুল পড়লেই সতর্ক হতে হবে।

আরও পড়ুনঃ বুঝতে না দিয়েই করা যাবে ব্লক, দেখা যাবে হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস, কী ভাবে?

এই সময় নতুন চুল যদি না গজায় তবে সেটাও খুব চিন্তার বিষয়! কিন্তু বাড়িতেই সামান্য চেষ্টাতে এমন এক উপদান আপনি বানিয়ে ফেলতে পারেন! যা চট জলদি এই সব সমস্যার সমাধান করবে। না ক্যামিকেল যুক্ত শ্যাম্পু বা বাজারের যেকোনও হেয়ার ফল রোধ শ্যাম্পু বা যা কিছু থেকে অনেক ভাল কাজ দেবে।

বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?
বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

এর জন্য দরকার পেঁয়াজ আর অ্যালোভেরা। এই দুই উপদান চুলের মহা ওষুধ! ঝলমলে সুন্দর চুলের সব রহস্য লুকিয়ে আছে এই দুই উপাদানে। পেঁয়াজ বাড়িতে সকলের থাকে। আর অ্যালোভেরা বাড়িতেও থাকতে পারে। বাজার থেকেও কিনে আনা যেতে পারে। মোট কথা এই দুটি উপাদান খুব সহজেই পাওয়া যায়। আর যা চুলের সব সমস্যার সমাধান করে।

এর জন্য যা করতে হবে: প্রথমে একটা বড় পেঁয়াজ নিয়ে কুচি কুচি করে কেটে নিন। তারপর অ্যালোভেরা নিন। খোসা সমেত অ্যালোভেরাকেও কুচি কুচি করে কেটে নিন। পেঁয়াজ ও অ্যালোভেরার পরিমাণ যেন সমান সমান হয়। ১০০ গ্রাম পেঁয়াজ হলে ১০০ গ্রাম অ্যালোভেরা নিতে হবে।

কী ভাবে তৈরি করবেন: এবার ভাল করে কেটে ধুয়ে নিন এই দুই উপাদান। তারপর একটি মিক্সিতে দিয়ে সামান্য জল মেশান। ভাল করে পেস্ট বানান। এবার এই পেস্টটঅ হয়ে গেলে কাপড়ে ছেকে নিন। একটা ভাল কন্টেনারে রেখে দিন। এটাকে ফ্রিজে রাখা যেতে পারে সাতদিন পর্যন্ত।

বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?
বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

কী ভাবে ব্যবহার করবেন: এবার প্রতিদিন স্নানের আগে ভাল করে চুলের গোড়ায় এই মিশ্রণ মাখতে হবে। ঘণ্টা খানেক রেখে ঠাণ্ডা জলে মাথা ধুয়ে ফেলতে হবে। রাতে মেখে ঘুমিয়ে পড়লেও ভাল কাজ হবে। তবে ঠাণ্ডা লাগার প্রবণতা থাকলে স্নানের ঘণ্টা খানেক আগে ব্যবহার করলেই কাজ পাবেন। এভাবে রোজ ব্যবহার করতে হবে।

সেই সঙ্গে সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন শ্যাম্পু করে স্ক্যাল্প পরিস্কার রাখতে হবে। মাথায় ময়লা জমতে দেওয়া যাবে না। এভাবে ১৫ দিন ব্যবহার করলেই ফল পাবেন। তবে এই উপাদান খুব সহজেই তৈরি করা যায়। তাই গোটা বর্ষাকাল ব্যবহঅর করতে পারেন। এতে আপনার চুলের সব সমস্যার সমাধান হবে। চুল পড়া, খুশকি দূর হবে। নতুন চুল গজাবে।

বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

বর্ষায় একেবারে কমছে না চুল পড়া? রয়েছে আরও একাধিক সমস্যা, কিভাবে সমাধান করবেন?

বর্ষাকালে চুল প্রাণহীন ও উশকো খুসকো হয়ে যায়। তাই চুলের স্বাস্থ্য ফেরাতে ঠিক মতো কন্ডিশনিং করা দরকার। ফলে চুল বর্ষার জলে ভিজে গিয়ে যে ক্ষতি হয়, তার সম্ভাবনা কমে কন্ডিশনার ব্যবহার করলে। যদি বাজার চলতি কন্ডিশনার ব্যবহার করতে না চান, তাহলে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। প্রাকৃতিক কন্ডিশনার হিসেবে এর ভূমিকা অসামান্য।