বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার
Farooq Engineer surprised by Rohit's decision

নজরবন্দি ব্যুরো: রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে বাদ দিয়েই শেষ পর্যন্ত খেলতে নেমেছে টিম ইন্ডিয়া। গত বছর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে অশ্বিন দুরন্ত ছন্দে ছিলেন। এই মুহূর্তেও সেরা ছন্দে রয়েছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা স্পিনার। তবু তাঁকে বাদ দিয়ে একমাত্র স্পিনার হিসেবে রবীন্দ্র জাদেজাকে দলে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: দারিদ্র্য প্রতিকূলতা জয় করা বিশ্বসেরা তারকার গল্প, আজ লুইস সুয়ারেজ

বাকি চার সিমার খেলাচ্ছে ভারত।অশ্বিনকে বাদ দেওয়া নিয়ে অবশ্য টসের সময়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় রোহিতকে। তাঁর মতো সেরা অস্ত্রকে কেন খেলানো হচ্ছে না? এর উত্তরে অধিনায়ক বলেন, ‘অশ্বিনকে বাদ দেওয়া কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। ও আমাদের জন্য ম্যাচ উইনার হয়েছে। ওকে বাদ দেওয়াটা খুব ভালো কোনো বিষয় নয়।

WTC: বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার
বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার

তবে যা কন্ডিশনে, সেটার কথা মাথায় রেখে দলের জন্য যেটা ভালো হয়, সেটাই করতে হয়েছে।’ অপর দিকে টসে জিতে ফিল্ডিং নেবার জন্য প্রশ্নের মুখে পড়লেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ভারত অধিনায়কের এই সিদ্ধান্তে বিস্মিত হয়ে যান ভারতের প্রাক্তন উইকেট কিপার ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার।

WTC: বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার

ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার বলছেন, টস জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্তের পিছনে আসল কারণ হল নিজেদের টপ অর্ডারকে রক্ষা করা। প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, স্কট বোল্যান্ডের মতো বোলারের মোকাবিলা শুরুতেই হয়তো করতে চাননি ভারত অধিনায়ক। সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার বলছেন,

বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার

WTC: বাদ অশ্বিন, টসে জিতে রোহিতের ফিল্ডিং নেবার সিদ্ধান্তে বিস্মিত ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার

”ভারত টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই সিদ্ধান্ত আমাকে খানিকটা অবাক করেছে। তবে আমার মনে হয়, সবুজ ট্র্যাকে অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের সামনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা যাতে বেআব্রু হয়ে না পড়ে, সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” লাঞ্চ এর আগে পর্যন্ত অজিদের রান ২ উইকেটে ৭৩ রান। উইকেট পেয়েছেন সিরাজ ও শার্দূল ঠাকুর।