প্রায় দু’দশক, শুভেন্দু থেকে অভিষেক হয়ে সায়নী, যুব তৃণমূলের হাতবদল

প্রায় দু'যুগ, শুভেন্দু থেকে অভিষেক হয়ে সায়নী, যুব তৃণমূলের হাতবদল
প্রায় দু'যুগ, শুভেন্দু থেকে অভিষেক হয়ে সায়নী, যুব তৃণমূলের হাতবদল

নজরবন্দি ব্যুরোঃ প্রায় দু’দশক, প্রায় দু’যুগ, শুভেন্দু থেকে অভিষেক হয়ে সায়নী, যুব তৃণমূলের হাতবদল। আজ যুব তৃণমূলের সভাপতির পদে বসলেন আসানসোল দক্ষিণের পরাজিত প্রার্থী সায়নী ঘোষ। এর আগে ওই আসনেই ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তারও আগে দায়িত্ব সামলেছেন বর্তমান রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

আরও পড়ুনঃ BJP’র হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন সৌমিত্র, সুজাতা বলছেন ওঁর দলটাই ছেড়ে দেওয়া উচিত

তৃতীয় বারের জয় লাভের পর আজ প্রথম সর্বদলীয় বৈঠক করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সমস্ত সাংসদ বিধায়ক থেকে প্রশাসনিক কর্তাদের ডেকেছিলেন ওই সভায় একগুচ্ছ বড় সিদ্ধান্ত নিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। দলের সংগঠনকে মজবুত করতে ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ ফর্মুলায় হাঁটলো তৃণমূল কংগ্রেস। কিছু কিছু ক্ষেত্রে একেবারে গোড়া থেকে বদল করা হয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে হ্যাট্রিক জয়ের পর দলের ভাবমূর্তি আরও গ্রহণ যোগ্য করতে খোল নালচে পালটে ফেলেছেন মমতা।

গত ১০ বছর রাজত্ব করলেও দলের গায়ে লেগেছে বহু দাগ। তবে তৃতীয় ইনিংস শুরুতে মমতা বুঝিয়ে দিলেন ভাবমূর্তি ম্যাটারস। নেতাদের কোথায় কী বলতে হবে আর কী না তাও বলে দিলেন ইঙ্গিতে। মোট কথা বিনা কারণে আর বিতর্ক চাইছেন না তিনি। সমবন্টনের স্বার্থে ভাগ করলেন পদও।

পদ ছাড়লেন অভিষেক, যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি হলেন সায়নী ঘোষ। তবে এক নয়, একেবারে একাধিক পদে বড়ো বদল ঘটিয়েছেন তিনি। এদিকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পদত্যাগের পর রাজ্যের যুব তৃণমূলের সভাপতি হলেন সায়নী ঘোষ। অভিনয়ের উঠোন ছেড়ে রাজনিতির ময়দানে আসা সায়নীর উদ্যম প্রথম থেকেই নজর কেড়েছে সকলের। বাম মনোভাবের সায়নীর হঠাত তৃনমূলে আসায় অবাক হয়েছিলেন সকলেই। কিন্তু প্রথম বার রাজনীতিতে পা দিয়েই যেভাবে দিন রাত ছুটে বেড়িয়েছেন তিনি,  সেই ভালো কাজের পুরষ্কার হিসেবে অভিষেকের ছেড়ে যাওয়া জুতোতেই পা গলালেন তিনি।

অভিষেক গেলেন মুকুল রায়ের ছেড়ে যাওয়া ফাঁকা থাকা জুতোয় পা গলাতে। তাঁর কাঁধে আজ থেকে আরও বড়ো দায়িত্ব। তবে তার আগে আজকের সায়নীর পদ অর্থাৎ যুব তৃণমূলের সভাপতির পদে অভিষেকের আগে আসীন ছিলেন বর্তমান বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। ২০০৯ এবং ২০১৪ পরপর দু’বার তমলুক থেকে লোকসভা নির্বাচন জেতা শুভেন্দু ছিলেন যুব তৃণমূলের সভাপতি।

২০১৪এর লোকসভা ভোটের পর এক বৈঠকে তাঁর জায়গায় অভিষেক সর্বভারতীয় তৃণমূল যুবার সভাপতি পদ থেকে রাজ্যে অভিষেককে আনেন মমতা। অধিকারীকে করা হয় দলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক। ২০১৪ তে সেই দায়িত্ব গেল সায়নী ঘোষের হাতে। এক দশকের বেশি সময় ধরে রাজনীতির পাঠ নিয়ে সাবালক হয়ে অভিষেক গেলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আরও বড়ো দায়িত্বে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here