এবার চিনে বন্ধ হচ্ছে মার্কিন দূতাবাস! ট্রাম্প কে পাল্টা জবাব জিনপিং এর।

এবার চিনে বন্ধ হচ্ছে মার্কিন দূতাবাস! ট্রাম্প কে পাল্টা জবাব জিনপিং এর।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ এবার চিনে বন্ধ হচ্ছে মার্কিন দূতাবাস! আমেরিকাকে পাল্টা কে জবাব চিনের। কোভিড-১৯ এর প্রাথমিক ধাক্কা চিন সহ্য করলেও সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে আমেরিকা। এই পরিস্থিতির মধ্যেই সংঘাত তীব্র হতে চলেছে এই দুই দেশের। আমেরিকা সরকারের নির্দেশ, শুক্রবারের মধ্যে বন্ধ করতে হবে টেক্সাসের হিউস্টন শহরের চিনা দূতাবাস। এর পরই পাল্টা জবাব দিল বেজিং। বুধবার, ডিপার্ট্মেন্ট অফ স্টেট (Department of State) –এর মুখপাত্র মর্গ্যান অরটাগাস জানিয়েছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গোপন তথ্য সুরক্ষিত রাখতেই চিনা দূতাবাস বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ দেশে চলা চিনা দূতাবাস বন্ধের সিদ্ধান্ত আমেরিকা সরকারের।

এবার চিনে বন্ধ হচ্ছে মার্কিন দূতাবাস! আমেরিকায় চিনা দূতাবাস বন্ধ এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর পালটা জবাব দিল চিন। এবার চিনে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে মার্কিন কনস্যুলেট। করোনা ভাইরাসের উৎস উহান শহরেই মার্কিন দূতাবাস বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেজিং। চিনের এই পদক্ষেপে বিপাকে পড়েছে আমেরিকা। কারন চিনকে ধমক দেওয়ার যে বার্তা দূতাবাস বন্ধের মাধ্যমে ট্রাম্প প্রশাসন দিয়েছিল, সেই বার্তা বিশ্ববাসির কাছে ভালভাবে পৌঁছানোর আগেই জিংপিং প্রশাসনের এমন পদক্ষেপ আমেরিকাকে বিন্দুমাত্র পরোয়া করিনা এই বার্তাই দিল বিশ্ব কে।

উল্লেখ্য আমেরিকার পক্ষে এদিন মর্গ্যান অরটাগাস জানান, চিন আমেরিকার সর্বভৌমত্বে আঘাত করেছে। যা মেনে নেওয়া সম্ভব নয় কোন মতেই। তিনি বলেন, ভিয়েনা চুক্তি অনুসারে দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মাথা গলানো যাবে না। কিন্তু বেজিং এই চুক্তিতে স্থির থাকেনি। তাঁরা চুক্তি ভঙ্গ করেছে। আমেরিকায় চিনের যে সমস্ত দূতাবাস চলে তার মধ্যে টেক্সাসের হিউস্টন শহরের দূতাবাস বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে চিনকে। কিন্তু শুধু এই দূতাবাসটি কেনো বন্ধ করা সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমেরিকা সরকার তা সঠিক ভাবে জানা যায়নি। অন্যদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছে চিন। বেজিং-এর বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন তীব্র ভাষায় প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি বলেন, দূতাবাস বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়ে দুই দেশের মধ্যে সংঘাত তীব্র করছে আমেরিকা।

তাঁরা এই সিদ্ধান্তে অনড় থাকলে চিনের পক্ষ থেকেও কড়া জবাব দেওয়া হবে। আমেরিকার সংবাদ মাধ্যমে শোনা যায়, গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার রাতে টেক্সাসের হিউস্টন শহরের জরুরি নথি পুড়িয়ে ফেলতে দেখা যায় চিনা অধিকারিকদের। বিষয়টি সামনে আসার পরে, তদন্তের জন্য পুলিশকর্মীদের দূতাবাস চত্বরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। এই বিষয়ে এখন কোন মন্তব্য করেনি চিনের বিদেশমন্ত্রক ওয়াং ওয়েনবিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x