মেদিনীপুর থেকে নন্দীগ্রাম সর্বত্র ‘ব্যর্থ’ শুভেন্দুকে ব্রাত্য রাখা হল নাড্ডার রোড শো এবং সভামঞ্চে।

মেদিনীপুর থেকে নন্দীগ্রাম সর্বত্র ‘ব্যর্থ’ শুভেন্দুকে ব্রাত্য রাখা হল নাড্ডার রোড শো এবং সভামঞ্চে।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মেদিনীপুর থেকে নন্দীগ্রাম সর্বত্র ‘ব্যর্থ’ শুভেন্দুকে ব্রাত্য রাখা হল নাড্ডার রোড শো এবং সভামঞ্চে। দীর্ঘ টানাপড়েনের পর তৃণমূল ছাড়েন প্রাক্তন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি। ঘটা করে স্বয়ং অমিত শাহের হাত থেকে দলের পতাকা নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন তিনি।

আরও পড়ুনঃসিডনি টেস্টে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া, জোড়া চোটে চিন্তার মেঘ ভারতীয় শিবিরে।

দাদার অনুগামী হিসেবে বেশ কিছু কর্মী বিধায়ক তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করে। আর দলে যোগ দিয়ে অমিত শাহকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুর থেকে তৃণমূলকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার। বিজেপির অন্দরমহলও আশায় ছিল শুভেন্দু দলে এলে ভোটব্যাঙ্কের একটা বড় অংশ আসবে বিজেপির ঝুলিতে। তবে নিজের দেওয়া প্রতিশ্রুতির ধারেকাছে পৌঁছতে পারেনি তিনি। কিছুদিন আগে পূর্ব মেদিনীপুর এবং কাল নন্দিগ্রাম কোন সভাতেই সেই জমায়েত আনতে পারেননি তিনি।

উপরন্তু দিলিপ ঘোষ তথা বিজেপি হাওয়ায় যারা সভায় আসতেন তারাও দিলীপ অথবা কৈলাসের সঙ্গে শুভেন্দুকে দেখলে তারাও অশ্রাব্য গালিগালাজ করে সভাস্থলে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে চলে যাচ্ছে। শুভেন্দুর এই না পারা নিয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে রিপোর্ট জমা করে রাজ্য নেতৃত্ব। যার পরেই শুভেন্দুকে ব্রাত্য রাখার কথা ভাবে কেন্দ্রীয় কমিটি। আজ কাটোয়াতে সভা করেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। কৃষকদের প্রকল্প উদ্বোধন ছাড়াও একটি রোড শো করেন তিনি।

মেদিনীপুর থেকে নন্দীগ্রাম সর্বত্র ‘ব্যর্থ’ শুভেন্দুকে ব্রাত্য রাখা হল নাড্ডার রোড শো এবং সভামঞ্চে। যে সভায় দিলিপ ঘোষ রাহুল সিনহা থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায়কে দেখা গেলেও ডাকাই হল না শুভেন্দু অধিকারীকে। তাই আগামী দিনে বিজেপি শুভেন্দু সম্পর্ক তথা ভোট সমীকরণ কোন দিকে গড়ায় সেদিকে নজর থাকবে সকলের। বিধানসভা ভোটের আগে যা নিয়ে অস্বস্তিতে বিজেপি। কারন বাংলার সিঙ্ঘাসন দখলে উঠেপড়ে লেগেছে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x