তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব-দীপেন্দু, পুজোর আগেই মিলতে পারে গ্রিন সিগন্যাল

তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব-দীপেন্দু, পুজোর আগেই মিলতে পারে গ্রিন সিগন্যাল
তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব-দীপেন্দু, পুজোর আগেই মিলতে পারে গ্রিন সিগন্যাল

নজরবন্দি ব্যুরো: তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব বন্দোপাধ্যায়, দীপেন্দু বিশ্বাসরা। তালিকা অনেক লম্বা। ভোটের আগে অভিমান নিয়ে আর মানুষের জন্য কাজ করার বাসনে নিয়ে যারা গেরুয়া শিবিরে গিয়েছিলেন তাঁদের মোহ কেটেছে ভোট মেটার পরে পরেই। তবে পুরনো দল মুকুল ঔদার্য দেখায়নি আর কাউকে।

আরও পড়ুনঃ কলকাতায় সুদীপ রায় বর্মন সহ ৩ BJP বিধায়ক, বাড়ছে ফুল বদলের জল্পনা

সেই কারণে গত কয়েকমাস একপ্রকার অপেক্ষাতেই কাটাচ্ছেন ডাক সাইটে নেতা থেকে প্রাক্তন ফুটবলার সকলেই। অপেক্ষায় মমতার বহু দশকের সঙ্গী সোনালি দেবীও।

২১ এর ভোটের আগে বাংলায় এক প্রকার দল বদলের ঝড় বয়েছিল। এই বেলায় এক দলের হয়ে কথা বলে পরের দিনই অন্য দলের পতাকা হতে নিয়ে মানুষের জন্য কাজ করার বাসনা প্রকাশ করেছিলেন তৃণমূলের বহু প্রাক্তন নেতা মন্ত্রী। কেউ আবার তৃনমূলের জন্য বহু বছর ব্যয় করেও টিকিট না পেয়ে সম্মান খুঁজতে হয়েছিলেন গেরুয়া শিবিরে।কেউ কেউ বিরোধী দলের মঞ্চে উঠে প্রাক্তন দল নিয়ে নানা অভিযোগ প্রকাশ্যে এনেছিলেন।

19 1

তাদের বেশিরভাগ কে টিকিট দিয়েছিল বিজেপি। তবে তৃণমূলের হয়ে জিতে আসা নেতারা বিজেপির টিকিটে দাঁড়িয়ে বিশেষ সুবিধে করতে পারেননি। ভুল হয়েছিল গেরুয়া শিবিরের ব্লু প্রিন্ট। ভোট মেটার পরে পরে গেরুয়া শিবির তাদের ভুল বুঝতে পারার আগেই ততদিনে ঘর ওয়াপসি করতে চেয়েছিলেন দলত্যাগী নেতারা।

তবে তৃতীয় বারের জিতে ফেরা তৃণমূল স্পষ্ট না জানিয়েছিল। তাদের বক্তব্য ছিল শেষ সিদ্ধান্ত নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তার আগে ধৈর্য্য নিয়ে অপেক্ষা করতে হবে ফিরতে চাওয়া নেতাদের।

20 1

ঘরে ফিরতে চেয়ে অনেকেই যোগাযোগ করেছেন বর্তমান নেতা মন্ত্রীদের সঙ্গে। মুকুল রায় তৃণমূলে ফেরার পর তাঁর কাছেও গিয়েছেন কেউ কেউ। হ্যাঁ বলেননি দলনেত্রী। তবে সূত্রের খবর পুজোর আগে মিলতে পারে ছাড়পত্র।

তালিকার একেবারে প্রথমে রয়েছেন রাজীব বন্দোপাধ্যায়। আচমকা শুভেন্দু অধিকারীর পথ ধরে তৃণমূল থেকে বিজেপি, টিকিট পেয়েও জিততে না পারা রাজীব কয়েকমাস ধরেই চাইছেন তৃণমূলে ফিরতে। তাঁর ফেসবুক পোস্ট, মন্তব্য নিয়ে গত কয়েকমাসে কম জলঘোলা হয়নি। কখনো জল্পনা উস্কেছেন। কখনো নিজেই জল ঢেলেছেন জল্পনায়।

অন্যদিকে নারদ মামলায় তৃণমূলের নেতাদের গ্রেফতারির প্রতিবাদে বিজেপি ছেড়েছেন ফুটবলার দীপেন্দু, পুরনো দলের হয়ে খেলতে চান তিনিও। মমতার বহু দশকের সঙ্গী সোনালি গুহ টিকিট না পেয়ে অভিমানে গিয়েছিলেন বিজেপিতে। কদিন পর থেকেই আবেগ ভরা পোস্ট, কখনো সোজা মমতার বাড়ি গিয়ে বোঝাতে চেয়েছেন এবার ফের তৃণমূল জায়গা চায়।

তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব-দীপেন্দু, পুজোর আগেই মিলতে পারে গ্রিন সিগন্যাল

তবে দলের কর্মী সমর্থকদের আবেগ, মানুষের ভরসার কথা ভেবে দলত্যাগী দের নিয়ে চটজলদি জন সিদ্ধান্ত নেননি তৃণমূল সুপ্রিমো। শুধু বেশ কয়েকবছর আগে যাওয়া মুকুলকে ফিরিয়ে এনেছেন পুরনো ঘরে। তবে সূত্রের খবর এবার মিলতে পারে সেই ছাড়পত্র। পুজোর আগেই দলে ফিরতে পারেন রাজীব বন্দোপাধ্যায়রা। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস এই মুহূর্তে ব্যাস্ত ২৮সে আগস্ট নিয়ে। যুবদের সামনে রেখে আগামীর লড়াইয়ের ডাক দেবেন সেদিন মমতা। তাই এখনো দলের তরফে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here