আম আদমিকে স্বস্তি দিয়ে কমল পেট্রল, ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের দাম

আমআদমিকে স্বস্তি দিয়ে কমল পেট্রল, ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের দাম
আমআদমিকে স্বস্তি দিয়ে কমল পেট্রল, ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের দাম

নজরবন্দি ব্যুরোঃ অবশেষে টনক নড়ল কেন্দ্রের। আমআদমিকে স্বস্তি দিয়ে পেট্রল-ডিজেলের শুল্কে বিরাট ছাড় ঘোষণা করল মোদি সরকার। একধাক্কায় পেট্রলে শুল্ক কমিয়ে দেওয়া হল ৮ টাকা। আর ডিজেলে শুল্ক কমানো হল ৬ টাকা। যার ফলে পেট্রলে লিটারপ্রতি দাম কমবে ৯ টাকা ৫০ পয়সা।

আরও পড়ুন ঃ মেয়ের চাকরি পাওয়া এবং কাজে যোগদানের মাঝের সময়টা… সিবিআইকে কি তথ্য দিলেন পরেশ?

আর ডিজেলে দাম কমবে লিটারপ্রতি ৭ টাকা করে। রবিবার থেকেই নয়া দাম কার্যকর হবে। শুধু তাই নয় রান্নার গ্যাসেও ২০০ টাকা করে ভর্তুকি দেওয়া হবে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। নির্মলা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় থাকা ৯ কোটি মানুষ এর সুবিধা পাবেন।

এই সপ্তাহেই সাড়ে ৩ টাকা দাম বেড়েছিল এলপিজি-র। দিল্লিতে ১৪ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম দাঁড়িয়েছিল ১০০৩ টাকা। কলকাতা সে দাম ছিল ১০২৯ টাকা। ২০০ টাকা কমার ফলে আবারও ৮০০-র গণ্ডিতে এসে দাঁড়াল এলপিজি-র দাম।

বস্তুত গত ৭ বছরে মোদি সরকার জ্বালানি থেকে রেকর্ড পরিমাণ শুল্ক সংগ্রহ করেছে। দফায় দফায় বাড়ানো হয়েছে জ্বালানির অন্তঃশুল্ক। যার জেরে বিরোধী শিবিরের রোষানলেও পড়তে হয়েছে সরকারকে। পেট্রল-ডিজেলের মূল্য নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই তৃণমূল-সহ বিরোধীরা লাগাতার আক্রমণ করে চলেছে বিজেপিকে । যার ফলে সরকারের উপর চাপ ক্রমশ বাড়ছিল।

আম আদমিকে স্বস্তি দিয়ে কমল পেট্রল, ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের দাম

চাপের মুখে পড়ে কার্যত বাধ্য হয়েই শুল্ক কমানোর সিদ্ধান্ত নিল মোদি সরকার। উল্লেখ্য রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছিল। যদিও ভারতে গ্যাস বা পেট্রলের দাম বৃদ্ধির পিছনে যুদ্ধের প্রভাব রয়েছে, সে কথা মানতে চায়নি কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু দাম তো বাড়ছিলই। যদিও নির্মলার এই ঘোষণাকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি কংগ্রেস।