সুখবরের বিজ্ঞপ্তি, ২০ হাজার শিক্ষকের স্থায়ীকরণ শুরু রাজ্যে।

সুখবরের বিজ্ঞপ্তি, ২০ হাজার শিক্ষকের স্থায়ীকরণ শুরু রাজ্যে।

নজরবন্দি ব্যুরো: সুখবরের বিজ্ঞপ্তি, ২০১৮ সালে নিয়োগ হওয়া শিক্ষকদের স্থায়ীকরণ করার কাজ শুরু হল রাজ্যে। ইতিমধ্যেই পুলিশ ভেরিফিকেশন এবং মেডিক্যাল পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি জারি করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। চাকরির কনফর্মেশনের জন্য আবেদন করার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে তারা। তাতে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালে প্রায় ২০ হাজার শিক্ষক সরকারি ভাবে কাজে যোগ দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুনঃ পর্যাপ্ত পরিদর্শক নেই, ধুঁকছে রাজ্যের শিক্ষাব্যাবস্থা!

তাঁদের জন্য পুলিশ ভেরিফিকেশন ও মেডিক্যালের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এবিষয়ে পর্ষদের উপসচিব পার্থ কর্মকার বলেছেন, ওই বছর যে সমস্ত শিক্ষক বা শিক্ষিকারা হাইস্কুলে যোগ দিয়েছিলেন তাঁদের জন্য প্রধান শিক্ষকের কাছে আবেদন করতে হবে। প্রধান শিক্ষক তথা পরিচালনা কমিটির সম্পাদক এ বিষয় নিয়ে একটি বৈঠক ডাকবেন। তারপর শুরু হবে প্রক্রিয়াকরণ। এক্ষেত্রে পরিচালন কমিটি বা স্কুলম্যানেজমেন্ট কমিটির তরফে একটি রেলিউশন নিতে হবে।

সুখবরের বিজ্ঞপ্তি, সেখানে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের দায়িত্ব পালনের কথা উল্লেখ করা থাকবে। এরপর প্রধান শিক্ষক ডিআইয়ের কাছে একটি ফরওয়ার্ডিং লেটার পাঠাতে হবে। সেখানে সাতটি বিষয় উল্লেখ থাকবে। সেগুলি হল স্কুল সার্ভিস কমিশনের সুপারিশ পত্র, মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নিয়োগপত্র, অ্যাপ্রুভাল লেটার, পরিচালন কমিটির তরফে যে রেজুলেশন নেওয়া হয়েছে তার একটি ফটোকপি ও নন লিটিগেশন সার্টিফিকেট। যেখানে উল্লেখ থাকবে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনও মামলা নেই।

এছাড়া এর মধ্যে থাকবে পরিচালন কমিটির স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটির সম্মতিপত্র। এরপর ডিআইকে তাঁর মত উল্লেখ করে সেই সমস্ত তথ্য পাঠাবে পর্ষদকে। আর তা ১৫ জানুয়ারির মধ্যে পাঠাতে হবে। সেগুলি যাচাই করে একটি কনফার্মেশন চিঠি প্রার্থীর নামে পাঠাবে পর্ষদ। সেটি প্রধান শিক্ষককে পাঠানো হবে। চিঠি পাওয়ার পর তা সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের সার্ভিস বুকে রেকর্ড করে রাখবেন প্রধান শিক্ষক। প্রক্রিয়াটি এখানেই শেষ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x