আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষ বাবুলের!

আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষ বাবুলের!
আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, রাজ্য সভাপতিকে কটাক্ষ বাবুলের!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, এভাবেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ কে কটাক্ষ করলেন আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। কদিন ধরেই কেন্দ্রের সম্প্রসারিত মন্ত্রীসভা নিয়ে টলোমলো বিজেপির রাজ্য রাজনীতি। বাবুল সুপ্রিয় বা দেবশ্রী চৌধুরীকে বাদ দিলে মন্ত্রী করা হয়েছে নতুন চার জন কে। যার মধ্যে বাংলা ভাগের দাবি জানানো জন বার্নাও রয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ আমিও কি অন্য গাছের ছাল? রাজ্য নেতৃত্ব কে ‘বেসুরো’ মন্তব্যের ব্যাখ্যা চাইলেন সব্যসাচী।

এদিকে মন্ত্রীত্ব যাওয়ার ক্ষোভে বিদ্রোহ না করলেও ব্যাথিত বাবুল কিছু মন্তব্য করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেতার পরিপ্রেক্ষিতেই সর্বদা বিতর্কের শিরোনামে থাকা বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ। কটাক্ষ করেছিলেন বাবুল কে। শুক্রবার ইকোপার্কে বাবুল প্রসঙ্গে দিলীপ বলেন, “বাবুল সক্রিয় মন্ত্রী ছিলেন। কিন্তু মন্ত্রী থাকাকালীন তো মুখ্যমন্ত্রী কম গালমন্দ করেননি। এখন হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন বাবুল।” আজ সেই মন্তব্যের পাল্টা দিলেন সাংসদ।

আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন…. ‘মনের আনন্দে’ উনি অনেক কিছুই বলেনঃ বাবুল

আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন
আমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, দিলীপ কে টিপ্পনী বাবুলের!

এদিন সাতসকালে বাবুল সুপ্রিয় নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য তুলে ধরে পোস্ট করেন বাবুল। দআমার হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন, মন্তব্য করে তিনি লিখেছেন, “রাজ্য সভাপতি হিসেবে ‘মনের আনন্দে’ দিলীপদা অনেক কিছুই বলেন। আবারও বললেন, আমি শুনলাম। কিন্তু এই উক্তিটি কেন করলেন সেটা যদি এবারকার জন্য আমি ‘স্বজ্ঞানে’ বুঝেও না বুঝি তো ক্ষতি কি?? এটাই আমার প্রতিক্রিয়া! আমার “হাঁফ ছেড়ে বাঁচাতে” দিলীপদা আনন্দ পেয়েছেন এতেই আমি আনন্দিত! উনি রাজ্য সভাপতি – সবার শ্রদ্ধার পাত্র! আমিও আন্তরিক শ্রদ্ধা জানালাম প্রিয় দিলীপদাকে!!”

উল্লেখ্য বাবুল সুপ্রিয়র মন্ত্রীত্ব চলে যাওয়ায় মন্তব্য করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি বলেছিলেন, “বাবুল সুপ্রিয় আমার স্নেহভাজন, তার মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ার ফলে আমি দুঃখ পেয়েছি। তবে রাজনীতিতে এরকম হয়ে থাকে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here