বাদল অধিবেশন দিয়ে শুরু হচ্ছে দেশের পার্লামেন্ট, মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি।

বাদল অধিবেশন দিয়ে শুরু হচ্ছে দেশের পার্লামেন্ট, মানতে হবে স্বাস্থ্যবিধি।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ আগামী সেপ্টেম্বর থেকে বসছে সংসদের বাদল অধিবেশন। দেশে কোভিড-১৯ তার ভয়ালথাবা নিয়ে আছড়ে পড়ার পর, আগামী মাসেই হবে প্রথম অধিবেশন। শেষ সংসদের অধিবেশন বসেছিল গত ২৩ মার্চ। আর বহু চিন্তাভাবনা করে অবশেষে দুই কক্ষের প্রিসাইডিং অফিসাররাই এই সিদ্ধান্তে এসেছেন, যে সশরীরে হাজিরা দিতেই হবে সব সাংসদদের।

আরও পড়ুনঃ শ্বাসকষ্ট পেটের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন মুলায়ম সিং যাদব।

স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখে লোকসভা এবং রাজ্যসভার অধিবেশন সময়ের ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনা হতে পারে। বলা হচ্ছে লোকসভা মর্নিং শিফটে হলে রাজ্যসভা ইভিনিং শিফটে হতে পারে।অথবা একদিন অন্তর অন্তর লোকসভা ও রাজ্যসভার অধিবেশন বসতে পারে।এক্ষেত্রে লোকসভার ৫৪২ জন সদস্যের মধ্যে ১৬৮ জন লোকসভা কক্ষে উপস্থিত থাকবেন। বাকিরা বাকিরা রাজ্যসভা এবং দুই কক্ষের গ্যালারিতে উপস্থিত থাকবেন।

একইভাবে ২৪১ জন সদস্যের রাজ্যসভা কক্ষের মধ্যে শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে ৭৬ জন উপস্থিত থাকবেন। বাকিরা লোকসভা এবং উভয় কক্ষের গ্যালারিতে উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া সংসদ চলাকালীন দুই কক্ষের গ্যালারি এবং চেম্বারে বসে থাকা সদস্যদের সুবিধার্থে বিশাল স্ক্রিন লাগানো হচ্ছে। প্রত্যেক সদস্যের আসনের সামনে থাকবে মাইক্রোফোন। তবে কোন সাংসদ কোথায় বসবেন তা এখনও স্থির হয়নি।

প্রতিটি দলের সাংসদ সংখ্যার উপর নির্ভর করবে সাংসদদের বসানোর বন্দোবস্ত করা হবে। তবে চূড়ান্ত পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করার আগে বেশ কিছু ভার্চুয়াল অধিবেশন করার পরিকল্পনা করছেন প্রিসাইডিং অফিসাররা। সাংসদরা যাতে তাঁদের ভোট গোপনে দিতে পারেন, সেজন্য বিশেষ অ্যাপ তৈরি করছে ‘‌দ্য ন্যাশনাল ইনফর্মেটিক্স সেন্টার বা এনআইসি’‌।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x