সাত সকালেই অপসারণ, শুভেন্দুর সৌজন্যে মমতার আস্থা হারালেন শিশির!

সাত সকালেই অপসারণ, শুভেন্দুর সৌজন্যে মমতার আস্থা হারালেন শিশির!

নজরবন্দি ব্যুরো: সাত সকালেই অপসারণ, শুভেন্দুর সৌজন্যে মমতার আস্থা হারালেন শিশির! ফের পদস্খলন অধিকারী পরিবারের সদস্যের। এবার নিশানায় শিশির অধিকারী। দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদ চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল শিশির অধিকারীকে। জানা গিয়েছে, তাঁর জায়গায় বসানো হচ্ছে অখিল গিরিকে। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান করা হচ্ছে তরুণ জানা।

আরও পড়ুনঃ এই করোনা মহামারীর সময়ে আজও প্রাসঙ্গিক স্বামী বিবেকানন্দ।

যার ফলে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে যে, বর্ষীয়াণ তৃণমূল নেতা শিশির অধিকারীর প্রতি এই পদক্ষেপ কি শুভেন্দু-সৌমেন্দু দল ছাড়ারই পাল্টা? প্রশ্ন থাকছে সব মহলে। যদিও অধিকারী পরিবারের সঙ্গে অখিল গিরিদের সম্পর্ক খুব ভালো নয়। উল্লেখ্য, বিধানসভা নির্বাচনের আগে শুভেন্দু অধিকারীর দল বদল নিয়ে সুপ্রকাশ গিরি, অখিল গিরিরা অধিকারী পরিবারের নাম করে সরব হয়েছেন বারংবার। এ বিষয়ে অখিল গিরি বলেছেন, দিঘা শঙ্করপুর ডেভলপমেন্ট অথারিটির কাজ থমকাচ্ছে।

শিশির অধিকারী সেই কাজ এগোচ্ছেন না। সেই কারণেই তাঁকে সরানো হল। তৃণমূলের তরফেও কুনাল ঘোষ একই যুক্তি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এটা প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত। শিশিরদা বর্ষীয়ান নেতা। এই বয়সে, করোনার মধ্যে তাঁর পক্ষে ছোটাছুটি করা সম্ভব হচ্ছে না। সেই কারণেই হয়তো এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অখিল গিরি আরও ববলছেন, শুভেন্দু অধিকারীর দলত্যাগ কোনও কারণই ন‌য়, শিশিরবাবু সাম্প্রতিক কালে কোনও বৈঠক ডাকেননি, কাজ করেননি। সক্রিয়তার অভাবে কাজ আটকেছিল।

সাত সকালেই অপসারণ, শুভেন্দুর সৌজন্যে মমতার আস্থা হারালেন শিশির! যদিও প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত, তবে দূরত্বের কথা অস্বীকার করছে না কেউই। বলা হচ্ছে, শুভেন্দু-সৌমেন্দু দল ছা়ড়লেও একটিও শব্দ করেননি শিশিরবাবু। সেই নিয়ে ক্ষুব্ধ ছিল সংস্থার অনেকই। সব মিলিয়েই এই পথ বেছে নেওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x