Rajdhani Express: রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস

রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস
রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস

নজরবন্দি ব্যুরোঃ  সদ্য ঘটে গিয়েছে উত্তরবঙ্গের ময়নাগুড়ির ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। আহত হয়েছেন ৩৬ জন মানুষ। এরই মধ্যে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল রাজধানী এক্সপ্রেস। দিল্লি যাওয়ার পথে পিলারে ধাক্কা মারে ট্রেনটি। তবে বড়সড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে। গুজরাটের ভালসাদের কাছে ঘটেছে এই দুর্ঘটনা। ঘটনায় কেউ আহত হননি। তবে কী ভাবে এই ট্রেনের লাইনের ওপরে সিমেন্টের পিলার রাখা হল, তা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

আরও পড়ুনঃ ৫ টি ধারায় অভিযোগ, দুর্ঘটনাগ্রস্ত ট্রেনের চালকের বিরুদ্ধে FIR দায়ের!

দুর্ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সন্ধে ৭টা ১০ মিনিটে। গুজরাট পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘটনায় কেউ আহত হননি। পুলিশের অনুমান, দুষ্কৃতীরাই ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটানোর জন্য রেল লাইনের ওপর সিমেন্টের ওই পিলার রেখে গিয়েছিল। তাতে ধাক্কা লেগেই ট্রেন যাতে লাইনচ্যূত হয়ে যায়, সেই চেষ্টাই করেছিল দুষ্কৃতীরা। তবে দুষ্কৃতীদের সেই চেষ্টা পুরোপুরি ব্যর্থ হয়ে যায়।

এ দিন খবর পেয়ে এলাকা পরিদর্শনে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে যান পুলিশ ও রেলের আধিকারিকরা। রাজধানী এক্সপ্রেসের পিলারে ধাক্কা মারার ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। এই ঘটনায় কে বা কারা জড়িত, তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। এই ঘটনা প্রসঙ্গে ভালসাদ গ্রামীণ থানার এক আধিকারিক জানিয়েছেন, মুম্বই-হজরত নিজামুদ্দিন অগস্ট ক্রান্তি রাজধানী এক্সপ্রেস ট্রেনটি শুক্রবার ভালসাদের কাছে অতুল স্টেশনের কাছে রেলওয়ে ট্র্যাকের ওপর রাখা একটি সিমেন্টের পিলারে ধাক্কা মারে।

ট্রেনের ধাক্কায়, ওই পিলারটি অন্য ট্র্যাকে গিয়ে পড়ে। ট্রেনটির কোনও ক্ষতি হয়নি বলেই জানিয়েছে পুলিশ। কিন্তু, এর ফলে বড় কোনও দুর্ঘটনা ঘটতে পারত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস

রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস
রেল লাইনে পিলার! বড়সড় দুর্ঘটনা এড়াল রাজধানী এক্সপ্রেস

সুরাটের আইজি রাজকুমার পান্ডিয়ান এই ঘটনা প্রসঙ্গে জানান, কয়েকজন দুষ্কৃতী রেলের ট্র্যাকের ওপর সিমেন্টের পিলারটি রেখেছিল বলে অনুমান করা হচ্ছে। ট্রেনটি পিলারে ধাক্কা মারার পর ট্রেন ম্যানেজার স্থানীয় স্টেশন মাস্টারকে সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি জানান। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ভালসাদ গ্রামীন থানার পুলিশ একটি এফআইআর দায়ের করেছে। দুষ্কৃতীদের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।