হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি , এ যেন এক ‘কৃষ্ণগহ্বর’

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি , এ যেন এক ‘কৃষ্ণগহ্বর’
হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি , এ যেন এক ‘কৃষ্ণগহ্বর’

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বিশ্বাস করুন খুব দ্রুত ভাঙছে। নদীর ভাঙ্গনের থেকেও তীব্র, হিমবাহের গলনের চেয়েও দ্রুত ভাঙছে সামাজিক বাঁধন। আসলে আমরা ধীরে ধীরে একটা আবস্ট্রাক্ট ওয়ার্ল্ড এর বাসিন্দা হচ্ছি। যেখানে খবরের চ্যানেল যা দেখাচ্ছে আমরা সেভাবেই খবর দেখছি। রাজনৈতিক দল যেভাবে নিজেদের প্রবাব বিস্তার করতে চাইছে আমরা ঠিক তেমনটাই প্রভাবিত হচ্ছি।

আরও পড়ুনঃ পোপ ফ্রান্সিসের সাথে সাক্ষাৎ মোদীর, ভারতে আসার আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী

সোশ্যাল মিডিয়া যেভাবে আমাদের নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে আমরা সেভাবেই তাদের বশ্যতা স্বীকার করছি। গ্ল্যামার দুনিয়া যেমনটা আমাদের কাছ থেকে প্রত্যাশা করছে আমরা ঠিক সেভাবেই তাদের সহযোগিতা করছি। খেলার দুনিয়া যেভাবে আমাদের জুড়ে থাকতে চাইছে আমরা তেমনটাই আচরণ করছি। টিভি, সিরিয়াল, সিনেমা যেমনটা দেখাচ্ছে আমরা সেটাই নিজেদের ক্ষেত্রেও অনুকরনের চেষ্টা করে যাচ্ছি। এতে সত্যি সত্যি আমাদের নিজস্বতা হারিয়ে যাচ্ছে। হারাচ্ছে আমাদের পৃথক চিন্তা করার ক্ষমতা, ভাবনার জগৎ, চেতনার পরিধি, বিবেকের রাস্তা!!

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি
হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি

এখানেই শেষ নয়… হারাচ্ছে সম্পর্ক….. সম্পর্কের উষ্ণতা….. দায়িত্ব/ কর্তব্যের পরিধি….. ভালোবাসার ক্ষেত্র! আজকের দিনে কতজন পড়ার বা কাজের ক্ষেত্রের বাইরের বই পড়ে? কতজনই বা নিজের/ নিজেদের সাংস্কৃতিক শেকড়ের খোঁজ করে? কতজনই বা গভীর আরো গভীর পর্যন্ত ভাবতে পারে? গ্লোবাল ওয়ার্মিং থেকে যেমন পৃথিবীকে বাঁচানো দরকার ঠিক তেমনি ডিজিটাল/ প্রগতির এই জাল থেকেও আমাদের একদিন ফিরতে হবে।

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি

এখন আমরা খুব সহজে কোনো ঘটনার দ্বারা যেমন প্রভাবিত হচ্ছি ঠিক তেমনই খুব দ্রুত সেটা ভুলে অন্য ঘটনার ভেতরে ঢুকে যেতে দেরি করছি না। সম্পর্কের উষ্ণতা যেন শীতের পাতার মতন যেকোন সময়ে খসে পড়বে বলেই শুধু আটকে থাকছে আজকের দিনে। গান থেকে সুর চলে যাচ্ছে। ইতিহাস থেকে আবেগ সরে যাচ্ছে। কাজের থেকে সম্মান চলে যাচ্ছে!

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি

বিকাশ/ প্রগতির রাস্তায় দেশ অগ্রসর হতে থাকলেও যাদের জন্য এসব, সেই প্রজন্মের মানসিক স্বাস্থ্যরক্ষা আগামীর জন্য নিশ্চিত একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এই মুহূর্তেও কোনো দেশ কোনো সরকার কোনো রাজনৈতিক দল কোনো প্রতিষ্ঠান কোনো এনজিও এটা নিয়ে ভাবতে পারছে না বা ভাবলেও সভ্যতার প্রগতি এবং সামান্য মানবিক চেতনা/ মূল্যবোধ এর এই লড়াই থেকে বেরিয়ে আসার কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছে না।

13 4

আপনি হাঁটতে চাইবেন, রাস্তা নেই। আপনি খেলতে চাইবেন, মাঠ পাবেন না। আপনি বিপদে আছেন, লোক পাবেন না। আপনি ভালোবাসার ক্ষুধার্থ, সঙ্গী পাবেন না। আপনি বৃদ্ধ, হাত রাখার মতন কাধ পাবেন না। আপনি যুবক/যুবতী, পরামর্শ করার মাথা পাবেন না।

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি

আপনি নেতা, সাথী পাবেন না। এই নাই এর দেশে আপনার ভরসা শুধু আপনার নিজস্বতা, উপলদ্ধি, জ্ঞান, সাহস, পজিশন আর ওয়ালেট। বিনয়, সমর্পণ, ত্যাগ, সহজতা, সরলতা, নিঃস্বার্থ, প্রকৃত প্রেম যেদিন সমাজ থেকে সম্পূর্ণ হারিয়ে যাবে সেদিন কোনো কোমল মন আর স্বপ্ন দেখতে পারবে না….. স্বপ্নহীন সেই জীবন মৃত্যু ছাড়া আর কি??

হারাচ্ছে সম্পর্ক, সম্পর্কের উষ্ণতা, দায়িত্ব কর্তব্যের পরিধি

কিছুদিন আমি আজকালকার ট্রেন্ড গান শুনছিলাম, কোনো মেলোডি নেই !! কি আছে তবে?? কোকো কোলা তু…..!!!!!! Just jock….and we are becoming jocker gradually।

লেখকঃ ঊত্তম পণ্ডিত (শিক্ষক)