২১-র আগেই মাস্টারস্ট্রোক মমতার; করোনা আবহে সরকারি কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি

২১-র আগেই মাস্টারস্ট্রোক মমতার; করোনা আবহে সরকারি কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি

নজরবন্দি ব্যুরো: এই মুহূর্তে রাজ্য সহ গোটা দেশের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকে থামান। যদিও টানা লকডাউন চলার পরেও কমেনি এই মারণ করোনার ছোবল। আর এমন কঠিন সময়ের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চরম আর্থিক সঙ্কটেও নিয়ম মেনে বার্ষিক বেতন বৃদ্ধি বহাল রাখছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সাধারণত জুলাই মাসে সরকারি কর্মীদের মূল বেতনের ৩ শতাংশ হারে ইনক্রিমেন্ট হয়। করোনা ও আমফানের জোড়া ধাক্কার পরেও সেই নিয়মে কোনও পরিবর্তন করা হচ্ছে না। তবে কর্মীদের বর্তমান বেতন কাঠামো অনুযায়ী এই হারের কিছুটা এদিক ওদিক হতে পারে। এখন সরকারি কর্মীদের ন্যূনতম মূল বেতন ১৭ হাজার টাকা। সেক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বেতনের কর্মীর সব মিলিয়ে ৫০০ টাকার বেশি বেতন বৃদ্ধি হবে।

রাজ্য সরাসরি দফতর বাদে এর আওতায় পড়বেন সরকারের আর্থিক অনুদানে বেতন হওয়া কর্মীরাও। পঞ্চায়েত-পুরসভা, সরকারি স্বশাসিত সংস্থা এবং সরকারের আর্থিক অনুদানে চলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মী মিলিয়ে এই সংখ্যাটা প্রায় সাত থেকে সাড়ে সাত লক্ষ। অনেক আগে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর হয়েছে। এর ফলে গত জানুয়ারি মাস থেকে রাজ্য সরকারি কর্মীদের বেতন একলাফে বেড়েছে অনেকটাই। তার ঠিক আগে যে ‘রোপা ২০১৯’ প্রকাশিত হয়, তাতেই জুলাই মাসে বার্ষিক বেতন বৃদ্ধির কথা বলা আছে।

তার প্রস্তুতিও শুরু হয়েছে বিভিন্ন সরকারি অফিসে। এখন যে নিয়ম চালু রয়েছে, তাতে ‘ইনক্রিমেন্টে’র জন্য অর্থ-দফতরের নতুন করে কোনও নির্দেশ জারি করে না। কাজেই এবার বেতন বৃদ্ধি না হওয়ার কোনও নির্দেশ এখনও জারি না হওয়ায়, প্রক্রিয়াটি বহাল থাকছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x