মানা হয়নি কেন্দ্রের গাইডলাইন! তবে কি ভারতে বন্ধ হতে চলেছে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম?

মানা হয়নি কেন্দ্রের গাইডলাইন! তবে কি ভারতে বন্ধ হতে চলেছে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম?
মানা হয়নি কেন্দ্রের গাইডলাইন! তবে কি ভারতে বন্ধ হতে চলেছে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম?

নজরবন্দি ব্যুরোঃ এবার কি তবে ভারতে বন্ধ হতে চলেছে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম? কেন্দ্রের জারি করা গাইডলাইন এখনও লাগু না করায় জনপ্রিয় এই সোশাল মিডিয়াগুলি এখন সেই প্রশ্নেরই মুখে। সোশাল মিডিয়ার অপপ্রয়োগে রাশ টানতে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করে কেন্দ্র।

আরও পড়ুনঃ একদিন থমকে থাকার পরে আবারো বাড়লো পেট্রল ও ডিজেলের দাম

নির্দেশিকা লাগু করতে তিন মাসের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। আজই তাঁর শেষ দিন। কিন্তু সূত্রের খবর, কু অ্যাপ ছাড়া অন্য কোনো সোশাল মিডিয়া এই গাইডলাইন সম্পর্কে কোনো উচ্যবাচ্য করেনি। কি ছিল কেন্দ্রের গাইডলাইনে?

১) সোশাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক পোস্টের বিরুদ্ধে এবার থেকে সেই পোস্টদাতা ও সংশ্লিষ্ট মাধ্যমকে আদালতে পেশ করা যাবে।

২)প্রত্যেক প্ল্যাটফর্মে একজন মুখ্য আধিকারিক থাকবেন এবং সেই আধিকারিককে ভারতের বাসিন্দা হতে হবে।

৩) ওটিটি (OTT) প্ল্যাটফর্মগুলির উপর ত্রিস্তরীয় নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা আরোপের কথাও বলা হয়।

৪) নয়া বিধি অনুসারে প্রত্যেক সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে অভিযোগ জানানোর জন্য থাকবে একটি বিভাগ। OTT প্ল্যাটফর্মে অভিযোগ পাওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫) প্রত্যেক প্ল্যাটফর্মে যোগাযোগের জন্য একজন প্রধানকে নিয়োগ করতে হবে। আইনরক্ষকদের সঙ্গে তিনি সমন্বয় রেখে চলবেন।

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ২৫ মে এর মধ্যে সোশাল মিডিয়াগুলি নির্দেশিকা লাগুর ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত না জানাতে পারলে ভারতে তাঁদের ব্যবহারে রাশ টানা হবে। বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হবে। তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৭৯ ধারা অনুযায়ী সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করা আপত্তিকর কন্টেন্টের জন্য অপরাধমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। এখন দেখার আজকের পর কি সিদ্ধান্ত নেয় দু পক্ষই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here