সেনা দিবসে চিনকে কড়া হুশিয়ারি ভারতীয় সেনা প্রধানের

সেনা দিবসে চিনকে কড়া হুশিয়ারি ভারতীয় সেনা প্রধানের

নজরবন্দি ব্যুরো: সেনা দিবসে চিনকে কড়া হুশিয়ারি ভারতীয় সেনা প্রধানের। বার্ষিক সাংবাদিক বৈঠক থেকেই একযোগে চিন ও পাকিস্তানকে নিশানা করেছিলেন সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নরবণে । এদিন সেনা দিবসে ফের কড়া বার্তা দিলেন ড্রাগনকে। সেনাপ্রধান নরবণে চিনকে সাফ জানিয়েছেন, ভারত সীমান্ত সমস্যার সমাধান চায়। কিন্তু চিন যদি ভারতীয় জওয়ানদের ধৈর্যের পরীক্ষা নেয়, তাহলে তা হবে সবচেয়ে বড় ভুল।

আরও পড়ুন: অধ্যাপকের ঘরে তালা ভাঙায়, শাস্তির মুখে বিশ্বভারতীর ২ পড়ুয়া

জেনারেল নরবণে বলেন, “সীমান্তে যে ষড়যন্ত্র হয়েছিল তার পাল্টা দিয়েছেন আমাদের জওয়ানরা। পূর্ব লাদাখ সীমান্তে গালোয়ান-নায়কদের আত্মত্যাগ বিফলে যাবে না।” লাদাখ সীমান্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ভারতের ২০ জন জওয়ান শহিদ হয়েছিলেন। আমেরিকার গোয়েন্দা রিপোর্টে বলা হয়েছিল, চিনের ৩৫ জন প্রাণ হারিয়েছে।

এই সেনা দিবসে তাদের আত্মত্য়াগের কথাই বারবার ফিরে এল নরবণের মুখে। সেনাপ্রধান বলেন, “ভারতের সেনা কখনও দেশের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তায় বিন্দুমাত্র আঘাত আসতে দেবে না।” চিনকে বার্তা দিয়ে সেনাপ্রধান বোঝালেন, ভারত কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমেই শান্তি চায়। কিন্তু নিরাপত্তার রক্ষার স্বার্থে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত তারা।

সেনা দিবসে চিনকে কড়া হুশিয়ারি ভারতীয় সেনা প্রধানের। এপর্যন্ত লাদাখ সীমান্তে শান্তি ফিরিয়ে আনতে ভারত ও চিনের মধ্যে ৮ বার উচ্চ সামরিক পর্যায়ের বৈঠক হয়েছে। কিন্তু রফাসূত্র মেলেনি। ভবিষ্যতে যে আরও বৈঠক হতে পারে সেই ইঙ্গিতও দিলেন নরবণে। সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া নিয়ে পাকিস্তানকেও বিঁধলেন সেনাপ্রধান। তিনি বলেন, “অন্য সীমান্তেও আমরা কড়া পদক্ষেপ করেছি। পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদীদের বাসস্থান দিয়ে যাচ্ছে। গত বছর যুদ্ধবিরতি আগের থেকে ৪০ শতাংশ বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। যা পাকিস্তানের পরিকল্পনার প্রমাণ। তারা ড্রোনের মাধ্যমে অস্ত্র পাচারের কাজ করছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x