‘সবটাই প্রচারের জন্য’, জন্মদিনেও মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দিলীপের।

‘সবটাই প্রচারের জন্য’, জন্মদিনেও মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ দিলীপের।

নজরবন্দি ব্যুরো: ‘সবটাই প্রচারের জন্য’, আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ, ভোটের আগে এ যেন রোজকার নামচা। গতকালই একগুচ্ছ প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী । এরপরই ওই সমস্ত প্রকল্প নিয়ে সর্রব হন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একের পর এক রাজ্যে নতুন প্রকল্প শুরু প্রসঙ্গে নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। দাবি করলেন, সবটাই প্রচারের জন্য। মঙ্গলবার সকালে যাদবপুরের সুলেখা মোড় থেকে একাধিক ইস্যুতে শাসকদলকে তুলোধনা করেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ।

আরও পড়ুনঃ ‘মহারাজ’কে দেখতে শহরে পা দেবী শেঠীর, উডল্যান্ডসে মেডিক্যাল বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা

মুখ্যমন্ত্রী গতকালই ঘোষণা করেছিলেন চোখের আলো প্রকল্পের কথা। জানিয়েছিলেন, সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ২০ লক্ষ বৃদ্ধ-বৃদ্ধার ছানি অপারেশন করাবে রাজ্য সরকার। তাঁদের মধ্যে আট লক্ষের বেশি মানুষকে বিনামূল্যে চশমা দেওয়া হবে। এই প্রকল্পের সুবিধা পাবে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরাও। এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, “রাজ্যের কোনও প্রকল্পের সুবিধাই কেউ পায় না। এসব ভোটের আগে পাবলিসিটির জন্য ঘোষণা করা।

‘সবটাই প্রচারের জন্য’, মানুষ জানে তাঁরা কিছুই পাবে না। স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের এত প্রচার। কতজন পেয়েছে?” এরপরই কিষান নিধি প্রকল্প নিয়ে রাজ্যকে একহাত নেন বিজেপি সাংসদ। বিদ্রুপের সুরে বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী কারণেই রাজ্যের কৃষকরা বঞ্চিত হয়েছেন এতদিন। এবার রাজ্য তথ্য যাচাই করবে বলেছে। আমার সন্দেহ, সেখানে আদৌ আসল কৃষকদের নাম থাকবে নাকি তৃণমূল নেতাদের!” রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বিজেপি নেতাদের উপর হামলার বদলা নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন দিলীপ।

বলেন, “মারের বদলা মার দেওয়া হবে। যার যেরকম ট্রিটমেন্ট লাগবে তাকে তেমনটাই দেওয়া হবে। এত অত্যাচার কিছুতেই সহ্য করা হবে না।” গতকাল কলকাতায় মেগা মিছিল হওয়ার কথা ছিল বিজেপির। যার মূল আকর্ষণ ছিলেন শোভন-বৈশাখী। কিন্তু শেষমেষ তাঁদের দেখা যায়নি মিছিলে। কিন্তু কেন? এবিষয়ে প্রশ্ন করতেই সাবধানী দিলীপ বিষয়টি জানা নেই বলেই দায় এড়ালেন। তবে এই নিয়ে বিজেপির অন্দরে প্রবল ঝড় উঠেছে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x