Suvendu Adhikari: পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহকে জানালেন শুভেন্দু

নজরবন্দি ব্যুরোঃ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারিকে কেন্দ্র করে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। আপাতত এই ইস্যুকে হাতিয়ার করে আগামী দিনে রণনীতি স্থির করতে চাইছে বিজেপি। সেবিষয়েই মঙ্গলবার সংসদ ভবনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন জানালেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ Partha-Arpita: কলকাতায় ফের অভিযানে নামল ইডি, সাত জায়গায় চলছে অভিযান

সূত্রের খবর, পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘনিষ্ঠ শতাধিক নেতাদের নাম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হাতে তুলে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। আগামী দিনে তৃণমূলকে কীভাবে কোণঠাসা করা যায়? সেবিষয়ে আলোচনা হয়েছে দুই পক্ষের মধ্যে।

পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহকে জানালেন শুভেন্দু
পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহকে জানালেন শুভেন্দু

এমনিতেই শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি ইস্যুকে হাতিয়ার করে জাতীয় রাজনীতিতে সুর চড়াতে চাইছে বিজেপি। পার্থ ইস্যুতে কিভাবে চাপ বাড়ানো যায়? তা নিয়েই আলোচনা হয়েছে? একইসঙ্গে বাংলায় দ্রুত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রয়োগের দাবি জানিয়েছেন শুভেন্দু

এমনিতেই শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতিকে সামনে রেখে জেলায় জেলায় আন্দোলন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি। একাধিক জায়গায় প্রকাশ্য সভা থেকে জেলার তৃণমূলের নেতাদের নাম করে দুর্নীতিতে জড়িয়ে থাকার অভিযোগ তুলেছেন। পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে ইডি গ্রেফতার করার পর থেকেই উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গের একাধিক নেতারা আশঙ্কা করছিলেন তাঁদেরকেও ইডি তলব করতে পারে। এমনকি বেপাত্তা অনেকেই। এবার তাঁদের তালিকা দিয়েই চাপ বাড়ালেন না তো শুভেন্দু?

পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক ঘিরে জল্পনা 

পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহকে জানালেন শুভেন্দু
পার্থর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন শতাধিক জন, অমিত শাহকে জানালেন শুভেন্দু

তবে নতুন জেলা বিষয়েও দুই পক্ষের মধ্যে বৈঠক হতে পারে। এমনটাও আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ, সোমবার রাতে দিল্লি রওনা দেওয়ার আগে শুভেন্দু বলেছিলেন, আইএএস-আইপিএসদের ৬০-৪০ যে অনুপাত রয়েছে, তা তুলে দেওয়া নিয়ে সব রাজ্যের থেকে মতামত জানতে চেয়েছিল কেন্দ্র। আইএএস-আইপিএসদের যেন ছাড়তে না হয়, সেই কারণেই এতগুলি জেলার তৈরি সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর পিছনে অন্য কোনও কারণ নেই। তবে মুখ্যমন্ত্রীর এই উদ্দেশ্য সফল হবে না।

কিন্তু এসবের মাঝেও শুভেন্দুর তৃণমূল নেতাদের তালিকা নিয়ে সবচেয়ে বেশী আলোচনা হচ্ছে।