তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম, ৫৭-র বার্থডে ‘বয়’ কে ‘ভালবাসার’ শুভেচ্ছা বৈশাখীর!

তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম, ৫৭-র বার্থডে 'বয়' কে 'ভালবাসার' শুভেচ্ছা বৈশাখীর!
তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম, ৫৭-র বার্থডে 'বয়' কে 'ভালবাসার' শুভেচ্ছা বৈশাখীর!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম, ৫৭-র বার্থডে ‘বয়’ শোভন চট্টোপাধ্যায় কে ‘ভালবাসার’ শুভেচ্ছা জানালেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়! সব অধিকার দিয়েছেন শোভন, নতুন ইনিংস উভয়ের! এতোদিন বন্ধু, দাদা বলে এলেও এই মুহুর্তে তাঁদের সম্পর্ক আর শুধু বন্ধুত্বের নয়। কদিন আগে তেমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন খোদ বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। ব্যাক্তিগত জীবনের পাশাপাশি ফেসবুকেও নিজের নামের সঙ্গে জুড়ে নিয়েছেন ‘শোভন’ এর নাম। এখন থেকে তিনি শোভন বৈশাখী ব্যানার্জী। ছবিতে ক্যাপশন দিয়েছেন ‘The Journey From Me to We Begins’.

আরও পড়ুনঃ পেট্রোল কর ছাড় থেকে স্ট্যাম্প ডিউটিতে ছাড়, অর্থ বাজেটে একগুচ্ছ ঘোষণা রাজ্যের।

আর এবার জানালেন তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম! ১৯৬৪ সালের ৭ জুলাই জন্ম কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। বুধবার ৫৬ পার করে ৫৭-তে পা দিয়েছেন তিনি। সেই উপলক্ষেই বার্তা দিয়েছেন বৈশাখী। জন্মদিনের সাতসকালে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় ফেসবুকে লিখেছেন, ‘তুমি আর আমি তারায় তারায় লেখা আছি, শুভ জন্মদিন শোভন।’

তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম!

এমনিতেই বাংলার রাজনৈতিক মহল রঙিন তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে। সমস্ত আলোচনার মাঝখানে এসে প্রায় সব আলো শুষে নেন তাঁরা। বাংলা রাজনীতির রোমিও জুলিয়েট আখ্যাও পেয়েছেন ইতিমধ্যে। আর তা নিয়ে নিজেদের মতো করেই দিন কাটাচ্ছেন উভয়েই।

রাজনীতির চরম পর্যায় থেকে নারদা কান্ডে জেলে যাওয়া শোভন, কান্নাকাটি, হল্লাহাটি সব নিয়ে প্রায় প্রত্যেক জায়গাতেই স্বমহিমায় উপস্থিত থেকেছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক পট পরিবর্তন থেকে আত্মপলোব্ধি সব কিছুতেই পাশে থেকেছেন বৈশাখী দেবী। প্রতি ঘটনাতেই একপ্রকার প্রত্যক্ষ্য বা পরোক্ষ সংঘাত বেঁধেছে শোভন-জায়া রত্না দেবীর সঙ্গেও।

শোভনের জেলে যাওয়া এবং অসুস্থ হয়ে উডবার্নে চিকিৎসাধীন থাকার মাঝে ‘স্বামী কেন আসামি’র প্রেক্ষাপট তৈরী হয় রাজনীতির রঙ্গমঞ্চে। প্রথম রাউন্ডে রত্না এগিয়ে গেলেও, শেষের দিকে ‘চিরদিনই তুমি যে আমার’ অঙ্কে এগিয়ে যান বৈশাখী। এখন আবার নেট দুনিয়ায় মাথা চাড়া দিয়েছে শোভনের পারিবারিক কাহিনী। কদিন আগেই রত্নার কিছু ছবি প্রকাশ করে শোভন বৈশাখী দাবি করেন, রত্না পরকীয়াতে মত্ত।

শোভনের অভিযোগ, ‘রত্না চট্টোপাধ্যায়ের ব্যভিচারী আচরণের জন্যই ডিভোর্সের পথে হাঁটা।’অন্যদিকে রত্নার দাবি, “শোভন মিথ্যেবাদী, নোংরা। সিবিআই কিছু বলেনি। মানবিকতা বোধ ছিল বলেই গিয়েছিলাম। শোভন পাগল। বৈশাখী এমন কিছু খাওয়ায়, তাতে পাগল হয়ে গেছে, স্লো পয়জন করা হচ্ছে।” এদিকে আজ বৈশাখী জানিয়ে দিলেন তারায় তারায় লেখা আছে তাঁদের নাম!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here