বুধের পর গুরুবারেও প্রচারে হোঁচট প্রিয়াঙ্কার, ভবানীপুরে বাধা, বচসা পুলিশের সঙ্গেও

বুধের পরে গুরুবারেও প্রচারে হোঁচট প্রিয়াঙ্কার, ভবানীপুরে বাধা, বচসা পুলিশের সঙ্গেও
বুধের পরে গুরুবারেও প্রচারে হোঁচট প্রিয়াঙ্কার, ভবানীপুরে বাধা, বচসা পুলিশের সঙ্গেও

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বুধের পর গুরুবারেও প্রচারে বেরিয়ে বাধা পেলেন ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিব্রীওয়াল। নাম ঘোষণা থেকে মনোনয়ন একেবারে শেষ দিনে করলেও প্রচারের শুরু থেকেই ঝাঁঝ বাড়িয়েছে টিম প্রিয়াঙ্কা। মনোনয়ন জমা থেকে প্রচার সব সময়েই পাশে দেখা গিয়েছে শীর্ষ নেতাদের।

আরও পড়ুনঃ চিকিৎসার জন্য এসেছিলেন কলকাতায়, করোনায় প্রয়াত CPM-এর ত্রিপুরা সম্পাদক গৌতম দাস

প্রিয়াঙ্কাকে বিজেপি প্রার্থী ঘোষণার পর রাজনৈতিক মহল গুলি বলেছিল, বিজেপির লক্ষ্য ভবানীপুরের অবাঙালি ভোট। আর ঠিক সেই কারণেই তাবড় তাবড় নামেদের পাশ কাটিয়ে প্রিয়াঙ্কাকে ভবানীপুরে মমতার বিপরীতে দাঁড় করিয়েছে গেরুয়া শিবির। শুরু থেকে নিজের জয় সপর্কে আত্মবিশ্বাসী প্রার্থী নিজেও। ৭০ শতাংশ ভোট ঠিক ভাবে পড়লে তিনি জিতবেন বলে প্রথম দিনেই জানিয়েছেন।

priyanka 2 1

তবে প্রচারের শুরু থেকে একের পর এক বাধার সম্মুখীন হয়েছেন আইনজীবী প্রার্থী।  গতকাল প্রচারে বেরিয়েও মেজাজ হারিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা টিব্রীওয়াল। বুধ সকালে যদুবাবুর বাজারে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচারের সময় তাঁর সামনেই ‘ঘরের মেয়ে’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা বলতে থাকেন স্থানীয়রা। ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিন্দাবাদ’ এবং ‘জয় বাংলা’ স্লোগানও দেন তাঁরা। তাতেই মেজাজ হারিয়েছিলেন মমতার বিজেপি চ্যালেঞ্জার।

বুধের পরে গুরুবারেও ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে। আজ সকালেও ভবানীপুরের অলি গলিতে নেমে প্রচার চালাচ্ছিলেন তিনি। সুত্রের খবর প্রচারের প্রথম ভাগেই ফের হোঁচট খান বিজেপির তুরুপের তাস। স্থানীয় সূত্রের খবর আজকের প্রচারেও স্থানীয়রা তাঁর সামনেই স্লোগান তলেন মমতার নামে। তাঁদের অভিযোগ ঘরের মেয়ের নির্বাচনি কেন্দ্রে এসে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট কাটতে চাইছেন প্রিয়াঙ্কা।

বুধের পর আজও প্রচারে বাধা বিজেপি প্রার্থীর, প্রিয়াঙ্কার সামনে ফের উঠলো ‘ঘরের মেয়ে’ স্লোগান। 

priyanka 3

একই সঙ্গে আজ তাঁর বচসা হয় পুলিশের সঙ্গেও। প্রিয়াঙ্কার দাবি কোভিড প্রোটকল মেনেই মাত্র চারজনকে সগে নিয়ে ভোট প্রচারে বেরিয়েছেন তিনি। কিন্তু ভিড় দেখানোর জন্য অকারণে তাঁর প্রচারের আশেপাশে এসে জড়ো হচ্ছেন সাদা পোশাকের পুলিশ। তিনি কী করছেন, কোথায় যাচ্ছেন এসব খবর পৌঁছে যাচ্ছে সরকারের কাছে। তাতেই বিরক্ত বিজেপি ক্যান্ডিডেট। সঙ্গে তিনি সাফ জানিয়েছেন পুলিশের নিরাপত্তার কোন প্রয়োজন নেই তাঁর। মনোনয়নের দিনে বিধি ভঙ্গের অভিযোগে গতকাল তাঁকে শোকজ লেটার পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here