SSC: নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি, বেতন বন্ধ করার নির্দেশ হাই কোর্টের!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ স্কুল সার্ভিস কমিশনের গ্রুপ ডি নিয়োগে দুর্নীতি। বৃহস্পতিবার সেই মামলায় বেতন বন্ধের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। জানা গিয়েছে, গ্রুপ ডি দুর্নীতি মামলায় আরও ৫৪২ জনকে চিহ্নিত করেছে আদালত। নিয়োগের নথী খতিয়ে দেখে বেতন বন্ধ করতে কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গ্রুপ ডি নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি নিয়ে বেনজির পদক্ষেপ কলকাতা হাইকোর্টের। 

আরও পড়ুনঃ SSC : সিদ্ধান্ত বদল, নেমে এলো সিবিআই তদন্তের স্থগিতাদেশ

হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছে, ৪ মে ২০১৯ সালের পরে কমিশনের সুপারিশে পর্ষদ নিয়োগ করে পদক্ষেপ করবে। সেই নিয়োগের নথী খতিয়ে দেখে বেতন বন্ধ করার জন্য কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ৫৪২ জনের মধ্যে চাকরী যারা পেয়েছেন তাঁদের বেতন অবিলম্বে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

এর আগে গ্রুপ ডি নিয়োগে যাবতীয় দুর্নীতির পর্দাফাঁস করতেই সিবিআইয়ের হাতে তদন্তভার তুলে দেয় হাইকোর্ট। ডিভিশন বেঞ্চের তরফে সপ্তাহ তিনেকের জন্য স্থগিতাদেশ জারি করা হয়। শুনানি চলাকালীন, স্কুল সার্ভিস কমিশন কে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় একের পর এক ভাবে তিরষ্কার করেন।

কমিশন সুপারিশ করেনি বলে বার বার দাবি করা হয়, তবে গত সোমবার হলফনামা দিয়ে বোর্ড জানায় কী ভাবে কমিশন সেই সুপারিশ করেছিল। তাঁরা পূর্নাঙ্গ রিপোর্ট জমা দেয় হাইকোর্টে। সফট কপির পাশাপাশি পেন ড্রাইভ দেওয়া হয়েছে বোর্ডের তরফে। এত প্রমাণ দাখিলের পরেই কমিশন কী করে বলছে সুপারিশ করেনি, তা নিয়ে বিস্মিত হন বিচারপতি।

কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, এই নিয়োগের পর্দা ফাঁস করার জন্যে সিবিআই এর প্রয়োজন রয়েছে। তাঁর কথায়, কমিশনের সুপারিশ যদি না করে, তা হলে কার হাত রয়েছে এই দুর্নীতির পেছনে তিনি তা জানতে চান। বিচারপতির প্রশ্ন, কার সুপারিশে ২৫ জন চাকরি পেলেন? সেতা পরিষ্কার হওয়া প্রয়োজন। অদৃশ্য ভাবে কে রয়েছে এই ঘটনার পেছনে তাঁকে খুঁজে বার করতে হবে।

নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি, ৫৪২ জনের বেতন বন্ধের নির্দেশ দিল আদালত 

নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি, ৫৪২ জনের বেতন বন্ধের নির্দেশ দিল আদালত 
নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি, ৫৪২ জনের বেতন বন্ধের নির্দেশ দিল আদালত 

তবে এবার সিঙ্গল বেঞ্চের  নির্দেশের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। জানা গিয়েছে আপাতত সপ্তাহ তিনেকের জন্য এই অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দেন বিচারপতি হরিশ টন্ডন ও রবীন্দ্রনাথ সামন্ত। এবার নিয়োগে বেলাগাম দুর্নীতি নিয়ে বেতন বন্ধের নির্দেশ দিয়ে নজিরবিহীন পদক্ষেপ নিল আদালত।