শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, FIR এর সপ্তাহ ঘোরার আগেই তদন্তে নামছে CID

শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, FIR এর সপ্তাহ ঘোরার আগেই তদন্তে নামছে CID
শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, FIR এর সপ্তাহ ঘোরার আগেই তদন্তে নামছে CID

নজরবন্দি ব্যুরোঃ শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, রাজ্যের বিরোধী দলনেতা এই মুহুর্তে বিপাকে পড়েছেন এই ঘটনাতেই। এমনিতেই তৃণমূল ত্যাগ করে গেরুয়া শিবিরে যাওয়ার পর থেকেই একাধিক কারণে সংবাদ শিরোনামে তিনি।

আরও পড়ুনঃ সরকারি জমি দখল করে বিক্রি করছেন ২০-২৫ লাখে, তদন্ত শুরু মন্ত্রী বার্লার বিরুদ্ধে

নির্বাচন লড়াই, মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিপক্ষ হিসেবে লড়াই, ভোটে জেতা, গেরুয়া শিবিরে দর বাড়িয়ে এই মুহুর্তে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা অধিকারী। তবে সব ঠিক চললেও বিপাকে পড়েছেন নিজের প্রাক্তন  দেহরক্ষীর মৃত্যুর ঘটনায়।

২০১৮ সালের ১৩ই অক্টোবর মাথায় গুলি লাগে শুভব্রতর, পরের দিনই মৃত্যু হয় তাঁর।  দিন কয়েক আগেই শুভেন্দুর আগের দেহরক্ষী কাঁথি থানায় শুভব্রত চক্রবর্তীর স্ত্রী সুপর্না চক্রবর্তী তাঁর স্বামীর রহস্য মৃত্যু নিয়ে সত্য উদঘাটনের জন্যে অভিযোগ দায়ের করেন। টানা ৭ বছর শুভেন্দুর দেহরক্ষী ছিলেন তিনি। আচমকাই গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারিয়েছিলেন।

সেই ঘটনাই এবার উঠে এসছে সামনে। স্বামীর মৃত্যুর সত্যতা জানতে ঘটনার প্রায় তিন বছর পর অভিযোগ দায়ের করেছেন স্ত্রী সুপর্না। অভিযোগ পত্রে তিনি বলেছিলেন, “প্রায় ৬-৭ বছর শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তারক্ষী হিসেবে কাজ করতেন তাঁর স্বামী।” গত ১৩/১০/২০১৮ তে তাঁর স্বামী সকাল ১০টা নাগাত ফোনে জানান বাড়ি ফেরার কথা। কিন্তু তিনি আর ফেরেন নি। সুপর্ণা খবর পান তাঁর স্বামীর মাথায় গুলি লেগেছে, গুলি চালিয়েছেন নিজেই।

শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, তিন বছর পর FIR দায়ের স্ত্রীর। 

শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, FIR এর সপ্তাহ ঘোরার আগেই তদন্তে নামছে CID
শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু, FIR এর সপ্তাহ ঘোরার আগেই তদন্তে নামছে CID

 

বছ খানেক পর কাঁথি থানায় শুভেন্দুর বিরুদ্ধে খুন এবং অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের মামলা রুজু করেন। শুভেন্দুর সঙ্গেই FIRএ তিনি নাম উল্লেখ করেছেন তাঁর ঘনিষ্ঠ ঘনিষ্ট রাখাল বেরার নামও। শুভেন্দুর দেহরক্ষীর মৃত্যু প্রসঙ্গে মহিষাদলের তৃণমূল বিধায়ক তিলক চক্রবর্তী জানিয়েছিলেন সেই সময়ে শুভেন্দুর নির্দেশেই গোটা ঘটনা চাপা দেওয়া হয়েছিল। বিচার চায় এবার।

ঘটনা প্রসঙ্গে মমতার প্রাক্তন সেনাপতি জানিয়েছিলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে এই পদক্ষেপ। সঙ্গে জানিয়েছিলেন রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি চান মর্যাদা দিয়ে আমি সেই কয়েকদিনে জেলে কাটিয়ে নেব। তিনি তো আমার থেকে বড়। FIR দায়েরের ৫ দিনের মাথায় এবার শুভব্রতর মৃত্যুর কিনারা করতে তদন্তে নামছে CID, আজই শুভব্রতর মহিষাদলের বাড়িতে যাওয়ার কথা তাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here