ত্রিপুরার কলেজে আক্রান্ত তৃণমূল- নিখোঁজ ছাত্রী, ২৮শের আগে আগ্রাসী BJP

ত্রিপুরার কলেজে আক্রান্ত তৃণমূল- নিখোঁজ ছাত্রী, ২৮শের আগে আগ্রাসী BJP
ত্রিপুরার কলেজে আক্রান্ত তৃণমূল- নিখোঁজ ছাত্রী, ২৮শের আগে আগ্রাসী BJP

নজরবন্দি ব্যুরো: ত্রিপুরার কলেজে আক্রান্ত তৃণমূল, খবর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এক ছাত্রীকেও। এ রাজ্যে বসে বিপ্লব গড়ের হিংসা আর বিজেপির আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে নিন্দা প্রকাশ করেছেন দলের নেতা মন্ত্রীরা। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আজই ত্রিপুরায় যাচ্ছেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় রাজীব-দীপেন্দু, পুজোর আগেই মিলতে পারে গ্রিন সিগন্যাল

২১ এর বাংলা ভোট জিতে মমতার লক্ষ্য দেশের গদি। ওয়াকিবহাল মহলের মতে ২৪ এর লড়াইয়ের আগে ২৩ এর ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনকে ওয়ার্ম আপ ম্যাচ হিসেবে দেখছে মমতা সরকার। পাখির চোখ যে এখন ত্রিপুরা সেকথা দলের তরফে জানানো হয়েছে আগেই। বাংলার মতোই ২১ সে জুলাই থেকে ২৮সে আগস্ট সব অনুষ্ঠানের মঞ্চ বাঁধা হচ্ছে বিপ্লব গড়ে।

দলের প্রচার আর সংগঠনের প্রসারের জন্য নির্দিষ্ট দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বাংলার নেতা মন্ত্রীদের। নিয়ম করে প্রত্যেকের কাজ খুঁটিয়ে দেখবেন অভিষেক বন্দোপাধ্যায়। মাসে কে কবার যাবেন সে রাজ্য তা নিয়ে তৈরি হয়েছে রুটিন। ইতিমধ্যে দফায় দফায় বাঙালি বিধায়ক সাংসদরা সেরাজ্যে গিয়েছেন। যুব মুখেরাও গিয়েছেন সেখানে।

তবে প্রথম থেকেই তৃণমূল অভিযোগ করেছিলেন ত্রিপুরায় বিধ্বস্ত গণতন্ত্র। প্রতি সফরেই তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীরা আক্রান্ত হয়েছেন, আক্রান্ত হয়েছেন খোদ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দোপাধ্যায়।

এর পরেই আজ সে রাজ্যের তৃণমূল কর্মীদের ওপর হামলা হয়েছে। অভিযোগের আঙুল উঠেছে গেরুয়া শিবিরের দিকেই। আগামী কাল ২৮ শে আগস্ট। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস। পরিকল্পনা হয়েছিল বড়ো অনুষ্ঠান না করে বিপ্লব গড়েও কলেজে কলেজে ছোট্ট অনুষ্ঠান হবে, তার পরেই প্রজেক্টরে শোনানো হবে দলনেত্রীর ভাষণ।

তবে তার আগেই ঘটেছে ছন্দপতন। সূত্রের খবর ত্রিপুরার এমবিবি কলেজে জিব তৃণমূলের সদস্যদের ওপর হামলা চলে, চলে মারধর। নিখোঁজ এক ছাত্রী।সমগ্র ঘটনায় আঙুল উঠেছে বিজেপির দিকে। অভিযোগ উঠেছে পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার দিকেও।

ওয়াকিবহাল মহেলর মতে ত্রিপুরায় তৃণমূলের অতিসক্রিয়তা নিয়ে চিন্তিত বিজেপি আর তাতেই এই আগ্রাসী পদক্ষেপ। ইতিমধ্যে বাংলার তৃণমূলের পক্ষ থেকে কড়া নিন্দা করা হয়েছে সমগ্র ঘটনার। তাদের মতে ত্রিপুরা বাসী এর জবাব দেবেন নিজেরাই।পরিস্থিতি বিচারে আজই সে রাজ্যে যাচ্ছেন শান্তনু সেন।

এদিকে আজ কলকাতায় এসেছেন ত্রিপুরার বিজেপি নেতা সুদীপ রায় বর্মন সহ ৩ বিজেপি বিধায়ক। সম্ভাবনা রয়েছে তৃণমূলের সঙ্গে বৈঠকের। তৃণমূলের তরফ থেকে আগেও বলা হয়েছে ত্রিপুরায় এই মুহূর্তে দু ধরনের বিজেপি বিধায়ক রয়েছেন।

ত্রিপুরার কলেজে আক্রান্ত তৃণমূল- নিখোঁজ ছাত্রী

এক গোষ্ঠী সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব বিরোধী, আর এক গোষ্ঠী বিপ্লব দেবকে সমর্থন করলেও বুঝছেন মানুষ চান না তাদের। তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ তো আগের দিনই জানিয়েছিলেন ত্রিপুরার যে পরিমাণ বিজেপি নেতারা যোগাযোগ করছেন তৃণমূলের সঙ্গে তাতে সে কোনো দিন সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারাবে বিজেপি।সব মিলিয়ে ওয়াকিবহাল মহলের মতে একদিকে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আর অন্য। দিকে একই সময়ে তৃণমূলে অতিসক্রিয়তা, দুইয়ের চাপে বিপ্লব গড়ে জেরবার গেরুয়া শিবির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here