উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, ‘২৪ হোক বা ‘২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।

উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, '২৪ হোক বা '২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।
উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, '২৪ হোক বা '২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।

অর্ক সানা, সম্পাদক(নজরবন্দি): উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, রণকৌশল সাজিয়ে আসরে নামছে তৃণমূল কংগ্রেস। সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে নিজেকে প্রমাণ করেছেন অভিষেক। বুঝিয়ে দিয়েছেন লম্বা রেসের ঘোড়া। ভাঙা পায়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন রাজ্য জুড়ে তখন দলের হাল ধরে ছিলেন অভিষেক। একের পর এক জনসভা, রোড শো। অভিষেকের জনপ্রিয়তা সাথে বাড়তে থাকে বিরোধীদের আক্রমণ।

আরও পড়ুনঃ সরকারি জমি দখল করে বিক্রি করছেন ২০-২৫ লাখে, তদন্ত শুরু মন্ত্রী বার্লার বিরুদ্ধে

বিধানসভা নির্বাচন চলাকালীণ মোদি-শাহ যতটা না টার্গেট করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে তাঁর থেকে অনেক বেশি নিশানায় ছিলেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। রাজ্যস্তরের শুভেন্দু, দিলীপ ঘোষ দের পাশাপাশি অভিষেকের বিরুদ্ধে ক্রমাগত আক্রমণ শানাচ্ছিলেন মোদি-শাহ-নড্ডারা। এমনকি ভোটের প্রচার চলাকালীন সিবিআই পৌঁছে গেছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শান্তিনিকেতন কে অশান্ত করতে!

পরে নারদা কাণ্ডে রাজ্যের ৪ প্রভাবশালি নেতাকে গ্রেফতার করার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন সিবিআই দফতরে ধর্ণা দিচ্ছেন, বাইরে অশান্ত তৃণমূল সমর্থক দের হুঙ্কার চলছে। তখন মাথা ঠান্ডা রেখে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন একমাত্র অভিষেক। একটা ট্যুইটে থামিয়েছিলেন যাবতীয় বিতর্ক। কোভিড বিধি অগ্রাহ্য করে তৃণমূল সমর্থকরা যখন বিক্ষোভ করছেন, হাতে গরম ইস্যু পেয়ে যখন বিরোধীরা চেপে ধরেছে নব নির্বাচিত শাসক তৃণমূলকে, তখন অভিষেকের ট্যুইট, “শান্ত থাকুন, সবাই বাড়ি যান। আইনের পথেই লড়াই হবে। জয় হবে আমাদের।”

উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, '২৪ হোক বা '২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।
উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, ‘২৪ হোক বা ‘২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।

হয়েওছিল তাই, নারদে ধৃতদের জামিন হয়েছে আদালতে। আইনের পথেই। এদিকে সর্বভারতীয় স্তরে নিজেদের বিস্তারে ব্রতী হয়েছে তৃণমূল। বিজেপির অশ্বমেধের ঘোড়া আটকে মমতা-অভিষেক জুটি প্রমাণ করেছেন, ২৪ নির্বাচন এতটা সহজ হবেনা। সূত্র বলছে আগামী লোকসভা নির্বাচনে কমপক্ষে ৫০ টি আসন নিজেদের দখলে নিতে চায় তৃণমূল। সেটা কি সম্ভব? রাজনীতি বলে কোনকিছুই অসম্ভব নয়। নাহলে এরাজ্যে বাম কংগ্রেস শূন্য হয়ে যায়?

উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক, ‘২৪ হোক বা ‘২৬, ভবিষ্যৎ তৈরী তৃণমূলের।

এদিকে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে সর্বত্র ভাল ফল হলেও উত্তরবঙ্গে নিজেদের ধ্বজা তুলে ধরতে পারেনি তৃণমূল। বামেদের হাত থেকে ক্ষমতা স্থানান্তরিত হয়েছে বিজেপির হাতে। তৃণমূলের ঝুলিতে প্রায় শূন্য। কেন এমন হল? সব কিছুর পর্যালোচনা করে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে আসরে নামানো হচ্ছে সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কে। উত্তরবঙ্গ পুনরুদ্ধারে অস্ত্র অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শোনা যাচ্ছে আগামি কয়েকদিনের মধ্যেই কাজ শুরু করবেন তৃণমূলের ‘পরবর্তী প্রজন্ম’, দলনেত্রীর পর সব থেকে জনপ্রিয় মুখ। যার হাতে নিশ্চিন্তে বাংলার দায়িত্ব দিতে পারবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here