কাশ্মীরে এখনও ২১৭ জন জঙ্গি বেঁচে! জানালেন ভারতীয় সেনার শীর্ষ কমান্ডার

কাশ্মীরে এখনও ২১৭ জন জঙ্গি বেঁচে! জানালেন ভারতীয় সেনার শীর্ষ কমান্ডার

নজরবন্দি ব্যুরোঃ সুড়ঙ্গ এখন ভারতীয় সেনার কাছে নতুন করে মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সুড়ঙ্গ দিয়েই অস্ত্র ও ড্রাগস পাকিস্তান থেকে ভারতে ঢুকছে বলে প্রমাণ পেয়েছেন ভারতীয় সেনার কর্তারা। গত কয়েক মাসে একাধিক সুড়ঙ্গের খোঁজ মিলেছে সীমান্তবর্তী এলাকায়। তাই এ নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলেন সেনা কর্তারা। তবে এদিন সেনা লেফটেন্যান্ট জেনারেল বি এস রাজু জানান,সীমান্তে সুড়ঙ্গ খুঁজে বের করার জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করছে সেনা। ফলে সুড়ঙ্গ দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা এবার ব্যর্থ করা যাবে বলে দাবি করেছেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ  রাম মন্দিরের নামে চাঁদা, অবৈধ তোলাবাজি! FIR দায়ের বজরঙ দলের বিরুদ্ধে

তিনি আরও দাবি করেন, ২০২০ সালে জম্মু-কাশ্মীরের বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনে কমবয়সীদের ভর্তির হার উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে। তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন,জঙ্গিদের কার্যকলাপের সব খবরই সেনার কাছে রয়েছে। সময় ও সুযোগ বুঝে অ্যাকশন নেওয়া হচ্ছে। এদিন তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে জঙ্গি সংগঠনগুলিতে ভর্তি উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে গিয়েছিল। আর এ নিয়ে বি এস রাজু এদিন জানালেন, উপত্যকায় আর মাত্র ২১৭ জন জঙ্গি বেঁচে রয়েছে।

এদিন বি এস রাজু বলেন, ”বিপথে যাওয়া যুবকদের প্রতি আবার অনুরোধ, তোমরা যে কোনও সময় ফিরে আসতে পারো। সেনা ও প্রশাসন তোমাদের পূর্ণ সুরক্ষা দেবে। তোমাদের বাড়ির লোক, আমাদের হেল্পলাইনে জানাও। আমরা তোমাদের ফেরার রাস্তা গড়ে দেব। সেনা কিন্তু জঙ্গিদের প্রথমেই মারতে চায় না। যে কোনও অপারেশনের সময় আমরা সাধারণ মানুষকে আগে সুরক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করি। জঙ্গিরা কোথাও আটকে রয়েছে জানতে পারলে আমরা আগে সেখানে পৌঁছে তাদের আত্মসমর্পণের জন্য বলি। জঙ্গিদের পরিচয় জানা গেলে তাদের বাড়ির লোকজনকেও ডাকা হয়। সব চেষ্টা ব্যর্থ হলে তবেই আমরা তাদের প্রাণে মারতে বাধ্য হই। অপারেশনের সময় জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের ঘটনাও ঘটেছে। আমরা যুবসমাজকে সঠিক পথে চালিত হওয়ার অনুরোধ করছি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x