মমতাকে হাফ লাখ ভোটে হারানোর চ্যালেঞ্জ, আগামীকাল খেজুরিতে সভা শুভেন্দুর।

মমতাকে হাফ লাখ ভোটে হারানোর চ্যালেঞ্জ, আগামীকাল খেজুরিতে সভা শুভেন্দুর।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মমতাকে হাফ লাখ ভোটে হারানোর চ্যালেঞ্জ, আগামীকাল খেজুরিতে সভা শুভেন্দুর। বেশ কিছুদিন হয়ে গেল দলত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করেছেন নন্দিগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। এদিকে বিধানসভা ভোট আসন্ন। জুজুধান বিজেপি তৃণমূলের মধ্যে চলছে কথার লড়াই। আজ দুপুরে তেখালির সভা থেকে সকলকে চমকে দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন আসন্ন নির্বাচনে তিনি দাঁড়াতে চলেছেন নন্দিগ্রাম থেকে। যা আদতে সদ্য দলত্যাগি শুভেন্দুর গড়।

আরও পড়ুনঃহাওড়ার সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বৈঠকে বসলেন অভিষেক, রয়েছেন কুণাল ও।

তিনি এও জানান হয়ত ভবানিপুর ও নন্দিগ্রাম দুই কেন্দ্র থেকেই ভোটে দাঁড়াতে পারেন তিনি। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সেই চ্যালেঞ্জের পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন শুভেন্দু। কালীঘাট থেকে ঢিল ছোড়া দুরত্বে রাসবিহারী এভিনিউ এর সভা থেকে শুভেন্দুর ঘোষণা “শুনে রাখুন মাননীয়া, আপনাকে নন্দিগ্রামে হাফ লাখ ভোটে হারাতে না পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেব।” তিনি আরও বলেন “আমি একটা শৃঙ্খলাবদ্ধ পার্টির সদস্য। আর তৃণমূল একটা প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি। দেড় জনের পার্টি। তাই মঞ্চে দাঁড়িয়ে মাননীয়া কোম্পানির সিদ্ধান্ত ঘােষণা করে দিতে পারেন। বিজেপিতে তা করা যায় না। নন্দীগ্রামে। দল আমাকে প্রার্থী করুক বা অন্য কাউকে, মাননীয়াকে হারাবই হারাব।”

এদিন রাসবিহারীর মঞ্চে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু বলেন, “মাননীয়া আপনি নন্দীগ্রামে সেই ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর শেষ বার গিয়েছিলেন। পাঁচ বছর পর ভােটের আগে ফের নন্দীগ্রামের কথা মনে পড়েছে। মানুষ সব জানে।” শুভেন্দু প্রশ্ন ছুড়ে বলেন, “আপনি নন্দীগ্রামের জন্য কী করেছেন? সিঙ্গুরে শিল্প বন্ধ করে দেওয়ার কথা অষ্টম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ে রয়েছে, নন্দীগ্রামের কথা এক লাইনও নেই.এদিন সাতটা জেলা থেকে আটশাে বাসে করে লােক এনেছিলেন। তাও মাঠ ভরাতে পারেননি। তাও যাঁরা ছিলেন তারা সব ওই হায়দরাবাদের পার্টির লােক। নন্দীগ্রামের ভােলেনি যে অরুণ গুপ্ত নন্দীগ্রামে গুলি চালিয়েছিলেন তাকে ষাট বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর চার বার এক্সটেনশন দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে সত্যজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় অধিকারী পাড়ায় গুলি চালিয়েছিলেন, সেই পুলিশ অফিসারকে টেট কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত মহাসচিব দলে সামিল করিয়েছেন। নন্দীগ্রামের মানুষ এর জবাব দেবেই দেবে।”

মমতাকে হাফ লাখ ভোটে হারানোর চ্যালেঞ্জ, আগামীকাল খেজুরিতে সভা শুভেন্দুর। প্রসঙ্গত খেজুরিতে কালই পাল্টা সভা করতে চলেছেন তিনি। তবে নিজের গড় নন্দিগ্রামে ভিড় জমাতে না পারা শুভেন্দুর খেজুরির সভা আদও সফল হবে কিনা সেই নিয়ে যথেষ্টই সন্দিহান রাজনৈতিক মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x