সুপ্রিম কোর্ট, হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি সহ মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি, কল্যাণের কুকীর্তি ফাঁস ১৫৭ আইনজীবীর!

সুপ্রিম কোর্ট, হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি সহ মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি, কল্যাণের কুকীর্তি ফাঁস ১৫৭ আইনজীবীর!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) বিরুদ্ধে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে এবার কলকাতা হাই কোর্টে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কল্যাণের বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন আইনজীবীদের। তাঁদের হাতে ছিল বিভিন্ন ধরনের পোস্টার। লেখা ছিল ‘কল্যাণের দাদাগিরি মানব না’, ‘কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় নিপাত যাক’।

আরও পড়ুনঃ TMC: মমতা ও অভিষেকের পদ বাদ রেখেই তৃণমূলের সাংগাঠনিক নির্বাচন, দিন ঘোষণা পার্থর।

হাই কোর্ট চত্বরে ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল আদালত চত্বরে। তবে শুধু বিক্ষোভই নয়, কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তোলা হয়েছে সিণ্ডিকেট চালানোর অভিযোগ। সিন্ডিকেট রাজ চালানো, পরিবারের লোককে সুবিধা পাইয়ে দেওয়া, মহিলা আইনজীবীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ করা হয়েছে আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে।

শতাধিক আইনজীবী আজ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন কল্যাণের বিরুদ্ধে। সুপ্রিম কোর্টের মহামান্য বিচারপতি, হাইকোর্টের মহামান্য বিচারপতি এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঠানো হয়েছে সেই চিঠি। মোট ১৫৭ জন আইনজীবী কল্যাণের বিরুদ্ধে লেখা চিঠিতে সাক্ষর করেছেন।  তৃণমূল লিগ্যাল সেলের আইনজীবীদের দাবি, দলীয় নেতৃত্বের তরফে শীঘ্রই ব্যাবস্থা নেওয়া হোক শ্রীরামপুরের সাংসদের বিরুদ্ধে। এদিন বিক্ষোভকারীদের মধ্যে আইনজীবী অচিন্ত্য বন্দ্যোপাধ্যায়ের বলেন, ক্রমাগত দুর্নীতি, লাঞ্চনার জন্য এই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন তাঁরা।

তৃণমূল লিগাল সেলকে কখনও সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় সাহায্য করেননি।বিক্ষুব্ধ আইনজীবীদের কথায়, “উনি বাড়ির জন্য কাজ করে থাকেন”। কল্যাণের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিটি অবৈধভাবে হাই কোর্টে পরিবারের সদস্যের জন্যও চেম্বার করে দিয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্ট, হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি সহ মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি, কল্যাণের কুকীর্তি ফাঁস ১৫৭ আইনজীবীর!

ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0001 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0002 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0003 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0004 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0005 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0006 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0007 ee043eedd39b4aa1b2f97fdae01525c5 0008

উল্লেখ্য, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় কর্মসূচি দু’মাস বন্ধ রাখা নিয়ে সম্প্রতি তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মুখ খুলেছেন কল্যাণ। কিছুটা শুভেন্দু অধিকারীর সুরে সুর মিলিয়ে কল্যাণ বলেছেন দলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া কাউকে মানিনা। এখানেই না থেকে কল্যাণের দাবি অভিষেকের গলায় তিনি বিজেপির সুর শুনতে পাচ্ছেন!!