সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP’র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল

সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP'র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল
সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP'র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল

নজরবন্দি ব্যুরোঃ সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত, আর তাতে যে ফলাফল তিনি তুলে ধরেছেন তাতে দেখা যাচ্ছে ২০২৩ এর লড়াইয়ে প্রেক্ষিতে ত্রিপুরায় বিপ্লব দেবের দল বিজেপির থেকে বহু এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস।

আরও পড়ুনঃ জম্মু কাশ্মীরের পুঞ্চ সেক্টরে অনুপ্রবেশ! খতম এক জঙ্গি

তৃণমূল সুপ্রিমো স্পষ্ট করে দিয়েছেন এই মুহুর্তে নজরে ত্রিপুরা। ২৩ এর ভোট যুদ্ধে কড়া টক্কর দিতে তৈরি দল। ২৮ তারিখের ভাষণে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, এক মাসেই ত্রিপুরা সরকারের গদি বদলানোর পথ তৈরি করে ফেলেছে তৃণমূল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পা দিলেই ভূমিকম্প হবে বিপ্লবের রাজ্যে।

তার পরেই প্রকাশ্যে এসেছে ত্রিপুরার মহারাজা প্রদ্যোত  মাণিক্যের সমীক্ষার ট্যুইট। সাম্প্রতিক সময়ে স্বশাসিত জেলা পরিষদের ভোটে বিপুল সাফল্য এনে দিয়েছে প্রদ্যোত, দিন কয়েক ধরেই তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান নিয়েও শুরু হয়েছিল জল্পনা।

সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP'র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল
সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP’র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল

প্রদ্যোত কিশোর তাঁর নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে যে ট্যুইট করেছেন তাতে স্পষ্ট লেখা আছে, বিজেপির অবস্থা এই মুহুর্তে ত্রিপুরায় তৃণমূলের থেকে বেশ কিছুটা পিছনে। সমীক্ষার ফল বলছে বিজেপি পাবে  ৩৭.২ শতাংশ ভোট, সিপিআইএম পেয়েছে ৭.৭ শতাংশ ভোট আর  তৃণমূল সেখানে পেয়েছে এখনও পর্যন্ত ৫৫.১ শতাংশ ভোট।

সঙ্গেই তিনি লিখেছেন, ‘হ্যালো আইটি সেল, যারা ইতিমধ্যেই ত্রিপুরার নির্বাচন জিতে নিয়েছিল, তারা কী বলবে টানটান প্রতিযোগিতা হবে ত্রিপুরায়? ত্রিপাকে এর বাইরে রাখা হয়েছে, কারণ আমাদের কোনও আইটি সেল নেই।’

সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP'র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল
সমীক্ষা করেছেন খোদ মহারাজা প্রদ্যোত! ত্রিপুরার যুদ্ধে BJP’র থেকে বহু এগিয়ে তৃণমূল

খোদ মহারাজার এই ট্যুইটে রীতিমত শোরগোল পড়েছে রাজ্য জুড়ে। বিজেপি এই সমীক্ষা উড়িয়ে দিতে পারলেও রাজ্যবাসী কিন্তু উড়িয়ে দিচ্ছেন না। গোটা ত্রিপুরা জুড়ে এমনিতেই খোঁজ চলছে বিজেপির বিকল্প খোঁজের। অন্যদিকে প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্যের হাতে রয়েছে গ্রেটার তিপ্র‍্যাল্যান্ড ইস্যু। বিজেপি এই ইস্যুর কথা বলে ক্ষমতায় এল, তিন বছরে সেই নিয়ে কাজ করেনি কিছুই। সব মিলিয়ে প্রদ্যোত মানিক্যের সমীক্ষাকে বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে বাকি সব মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here