মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি, চাকরি বিক্রি হচ্ছে ৮-১০ লাখে!!! 

মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি, চাকরি বিক্রি হচ্ছে ৮-১০ লাখে!!! 
মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি, চাকরি বিক্রি হচ্ছে ৮-১০ লাখে!!! 

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি হয়েছে রাজ্যে, এই মর্মে অভিযোগ উঠল এবার। গত জানুয়ারি মাসে হোমিওপ্যাথি মেডিক্যাল অফিসার পদে নিয়োগের পরীক্ষা হয়। পরীক্ষার প্রেক্ষিতে মেরিট লিস্ট তৈরি হয়ে গিয়েছে বলে খবর। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে, মেরিট লিস্ট থেকে যে সমস্ত নাম বাদ পড়েছে তাঁদের চাকরি দেওয়ার নামে ৮ থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চাওয়া হচ্ছে। টিভি নাইন বাংলা সূত্রে খবর, হোমিওপ্যাথি মেডিক্যাল অফিসার পদে নিয়োগের তালিকায় নাম নেই এমন প্রার্থীদের টাকার বিনিময়ে চাকরি নিশ্চিত করার টোপ দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যে সকলে প্যাকেট দুধ খায়, গরুর দুধে সোনা খোঁজা প্রসঙ্গে হতাশ দিলীপ

বিষয়টি নিয়ে টিভি নাইন বাংলা স্টিং অপারেশন করে। যেখানে ধরা দেন মধ্যস্থতাকারী এক ব্যক্তি। কী ভাবে এই পর্ব চলছে তা বলে ফেলেন তিনি। স্টিং অপারেশনে ধরা পড়েন নিয়োগ কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত রঞ্জিত বেরা। খবর সম্প্রচারিত হতেই নড়েচড়ে বসেছে স্বাস্থ্য দফতর। এদিন স্বাস্থ্য ভবনে স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগমের সঙ্গে দেখা করেন স্বাস্থ্য নিয়োগ বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রদীপ শূর। পরে প্রদীপবাবু বলেন, নিয়ম মেনেই নিয়োগ হয়েছে। কোনও অস্বচ্ছতার প্রশ্নই নেই।

স্বাস্থ্য নিয়োগ বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রদীপ শূরের কথায়, “নিয়মানুযায়ী সব নিয়োগ হচ্ছে। কোথাও কোনও অস্বচ্ছতার প্রশ্ন নেই। স্বাস্থ্যক্ষেত্রে চাকরি প্রার্থীদের মধ্যে আশ্বাস ফেরাতে যা যা করণীয় সব‌ই করা হবে। ইতিমধ্যে প্রশাসনিক পদক্ষেপের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু হয়েছে। দ্রুত তার ফল মিলবে বলে আমরা আশাবাদী।”

মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি

পাশাপাশি, ওয়েস্ট বেঙ্গল হেলথ রিক্রুটমেন্ট বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে, কোন প্রার্থী অ্যাকাডেমিকস-এ কত নম্বর পেয়েছেন তা কেউ দেখতে পাবেন না। এমন কী, কন্ট্রোলার অব এগজামিনেশন‌ও নন। পুরো প্রক্রিয়া কম্পিউটার সফট‌ওয়্যারের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। কন্ট্রোলার অব এগজামিনেশন কখন প্রার্থীর প্রফাইলের প্রিন্ট আউট নিচ্ছেন তা নথিভুক্ত থাকবে। পাশাপাশি চাকরি প্রার্থীদের তথ্য রাজ্য ডেটা সেন্টারের সঙ্গে যুক্ত থাকবে। সাথে সাথে বোর্ডের অফিসে বসানো হচ্ছে ১৬টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা।

মেডিক্যাল অফিসার নিয়োগে কেলেঙ্কারি প্রসঙ্গে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তথা তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন জানিয়েছেন, “খুবই স্বচ্ছতার সঙ্গে বোর্ডে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলে। এমন অভিযোগ আমার জানা নেই। তবে অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষ বলে আমি মনে করি। সত্য উদঘাটন হওয়া দরকার। এই ঘটনার পিছনে কোনও বৃহত্তর ষড়যন্ত্র চলছে কি না, তা দেখতে হবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here