Tripura: আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ

আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ
আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ

নজরবন্দি ব্যুরোঃ বাতিল হয়েছে সোমবারের সভা। আগরতলা বিমানবন্দরে অবতরন করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সেখানেও বিপত্তি। অভিষেকের কনভয়ের পিছনেই উদ্ধার হল বোমা। আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধারকে ঘিরে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

আরও পড়ুনঃ Supreme Court: কাল অভিষেকের সভার অনুমতি নেই, সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছে তৃণমূল।

সূত্রের খবর, বিমানবন্দরের বাইরে একটি কালো ব্যাগকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। উপস্থিত হয়েছে সিআইএসএফ কর্তারা। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে বম্ব স্কোয়াড। বিমানবন্দরের কড়া নজরদারি থাকা সত্বেও কে বা কারা ব্যাগ রেখে গেছেন? তা ঘিরে শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। মিছিল বাতিল করার পর এবার কালোব্যাগ রেখে চাঞ্চল্য ছড়ানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। ঘটনা প্রসঙ্গে এমনটাই মন্তব্য রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসুর।

এদিন বিমানবন্দরে নেমে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিল্পব দেব এবং বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন তিনি। তিনি বলেন, “গণতন্ত্রের স্তম্ভ সংবাদমাধ্যমের ওপর আক্রমণ করা হয়েছে। হাসপাতালে হামলা চালানো হয়েছে। আসলে আগরতলার মানুষকে ভয় দেখানো হচ্ছে। আমি বলব, যা বলার আমাদের বলুন। আগরতলার মানুষ শান্তিপ্রিয় মানুষ। তাঁদের এভাবে আক্রমণ করবেন না”।

তৃণমূল যুবনেত্রী সায়নী ঘোষের গ্রেফতার প্রসঙ্গে অভিষেক বলেন, সায়নী কী এমন বলেছিল যে ওকে গ্রেফতার করা হল? ‘খেলা হবে স্লোগান দিয়েছিল। এধরনের শ্লোগান তো নরেন্দ্র মোদিকে দিতে শোনা গেছে? তবে কী মোদিকে গ্রেফতার করা হবে?

সোমবার আগরতলায় রোড শো করার কথা ছিল অভিষেকের। কিন্তু প্রশাসনের তরফে তা বাতিল করা হয়। এ প্রসঙ্গে অভিষেক বলেন, “আগরতলায় আমার রোড শোয়ের কথা ছিল। কিন্তু রাতে ১২ টা বেজে ৩৭ মিনিট তা বাতিল করে দিয়েছে প্রশাসন। এখন প্রশাসন বলছে স্ট্রিট কর্নার করা যাবে। বলছে ১২ টা থেকে ২ টোর মধ্যে মিটিং করতে হবে। একটা সভা করতে লোককে জানান দিতে হয়। মঞ্চ বাঁধতে ৪ ঘন্টা সময় লাগবে”।

অভিষেকের সংযোজন, “সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে বিরোধীদের প্রচারের ক্ষেত্রে সুরক্ষার বিষয়টি রাজ্য সরকারকে দেখতে হবে। কিন্তু মহিলা প্রার্থীর ওপর হামলা করা হয়েছে। পুলিশ কাল ইস্ট মহিলা থানার বাইরে হামলা চালানো হল। টেবিলের তলায় পুলিশ লুকিয়ে পড়ছে।  ত্রিপুরায় নৈরাজ্য চলছে আর কতদিন? ত্রিপুরার মানুষকে বলব, ভয় পাবেন না”।

ত্রিপুরার ঘটনা প্রসঙ্গে দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ জানিয়েছেন, আইনজীবী নিয়ে ইতিমধ্যেই আগরতলা পূর্ব মহিলা থানায় উপস্থিত হবেন তাঁরা। দুপুর ১২ টা নাগাদ আদালতে পেশ করা হতে পারে সায়নীকে। এরপর দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করে দুপুর ৩ টে নাগাদ সাংবাদিক সম্মেলন করবেন তিনি।

অন্যদিকে, ত্রিপুরার ঘটনা প্রসঙ্গে সোমবার সকালে রাজ্য বিজেপির সদর দফতরের বাইরে বিক্ষোভ শুরু করেছে তৃণমূল। ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে বিরাট পুলিশ বাহিনী। কোনওরকম বিপত্তি যাতে না ঘটে তার জন্য ব্যারিকেড দিয়ে ওই রাস্তা ঘিরে রেখেছে পুলিশ।

আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বিজেপিকে আক্রমণ অভিষেকের 

আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বিজেপিকে আক্রমণ অভিষেকের 
আগরতলায় অভিষেকের কনভয়ের পিছনে বোমা উদ্ধার, বিজেপিকে আক্রমণ অভিষেকের

ত্রিপুরার ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, দুটো ঢিল পড়েছে, তাতেই আদালত এবং রাষ্ট্রপতি। বাংলায় বিজেপির ওপর যেভাবে আক্রমণ শানানো হয়েছে তা হলে ইউএনওতে উপস্থিত হতেন নেতারা।