মুক্তি পাচ্ছেন বলবিন্দর সিং। মুখ্যমন্ত্রী-র ভালবাসায় আপ্লুত করমজিৎ!

মুক্তি পাচ্ছেন বলবিন্দর সিং। মুখ্যমন্ত্রী-র ভালবাসায় আপ্লুত করমজিৎ!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মুক্তি পাচ্ছেন বলবিন্দর সিং। মুখ্যমন্ত্রী-র ভালবাসায় আপ্লুত তাঁর স্ত্রী করমজিৎ কৌর! নবান্নের সামনে স্ত্রী-পুত্র আর জেলে বলবিন্দর! মুক্তির দাবিতে শনিবার একযোগে অনশন করবেন তাঁরা বলে জানা গিয়েছিল। কিন্তু তাঁর আগেই এল সুখবর। মুক্তি পাচ্ছেন বলবিন্দর। উল্লেখ্য বিজেপি নবান্ন অভিযানে বন্দুক নিয়ে ধৃত বলবিন্দর কে ৮ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। গত ১১ই ফেব্রুয়ারি তাঁকে ৮ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারপতি।

আরও পড়ুনঃ মধ্য কলকাতার বহুতলে ভয়াবহ আগুন, ভেতরে আটকে ৫০টির বেশি পরিবার!

শুক্রবার জানা গিয়েছিল শনিবার থেকে জেলে অনশনে বসছেন বিজেপির নবান্ন অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্র-সহ ধৃত প্রাক্তন সেনাকর্মী বলবিন্দর সিং। একইসঙ্গে একই সময়ে স্বামীর মুক্তির দাবিতে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর নবান্নের সামনে অনশনে বসতে চলেছেন বলবিন্দরের স্ত্রী করমজিৎ কৌর ও তাঁর ছেলে হর্ষবীর। এক ভিডিও বার্তায় বলবিন্দরের স্ত্রী করমজিৎ বলেন, “আমার স্বামী নির্দোষ। তাঁকে পুলিশ মুক্তি না দিলে আমি, আমার ছেলেকে নিয়ে শনিবার সকাল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর নবান্নের সামনে অনশন শুরু করব।” তিনি মুখ্যমন্ত্রী কে আবেদন করেন স্বামিকে মুক্ত করার জন্যে।

বলবিন্দরের স্ত্রী কমরজিৎ জানান, শনিবার সকাল ১০টার মধ্যে বলবিন্দরকে ছাড়া না হলে ছেলেকে সাথে নিয়ে নবান্নের সামনে তিনি আমরণ অনশনে বসবেন। পরে রাজ্য পুলিশের শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ডিজি বীরেন্দ্র। বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এবং বলবিন্দর সিংয়ের পরিবারকে আশ্বাস দেওয়া হয়, বেআইনি অস্ত্র সঙ্গে রাখা–সহ তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ খারজি করা হবে। এবং তাঁকে শীঘ্রই সসম্মানে মুক্তি দেওয়া হবে। সূত্রের খবর আগামীকালই মুক্ত করা হবে তাঁকে।

মুক্তি পাচ্ছেন বলবিন্দর সিং। কৃতজ্ঞতা ব্যাক্ত করে ট্যুইট করেছেন মনজিন্দর সিং সিরসা। তিনি লিখেছেন, সঠিক বিচার পাওয়ার জন্য পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, কলকাতার শিখ সঙ্গত, রাজ্য পুলিশের ডিজি ও আপামর রাজ্যবাসীকে ধন্যবাদ। ট্যুইটে তিনি জানিয়েছেন, আসন্ন দুর্গাপুজো উপক্ষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলবিন্দর সিংয়ের স্ত্রী করমজিৎ কউরের জন্য একটি সালওয়ার সুটই পাঠিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই ভালবাসায় তাঁরা গভীরভাবে আপ্লুত বলে জানিয়েছেন করমজিৎ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x