১৯-এ পুরুলিয়ায় জনসভা মমতার, প্রস্তুতি বৈঠকে গরহাজির বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

১৯-এ পুরুলিয়ায় জনসভা মমতার, প্রস্তুতি বৈঠকে গরহাজির বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

নজরবন্দি ব্যুরো: ১৯-এ পুরুলিয়ায় জনসভা মমতার, শিয়রে বিধানসভা নির্বাচন। আসন্ন নির্বাচনে নিজেদের খুঁটি শক্ত রাখতে ময়দানে নেমেছেন খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শোনা যাচ্ছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে চলতি মাসের ১৯ তারিখ পুরুলিয়া শহরে রাজনৈতিক জনসভা করবেন তৃণমূলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: ১৯-এ পুরুলিয়ায় জনসভা মমতার, প্রস্তুতি বৈঠকে গরহাজির বিধায়ক, জল্পনা তুঙ্গে

জেলা তৃণমূল সূত্রে খবর, জে কে কলেজ মাঠে দুপুর একটায় ওই জনসভা হবে। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ওই রাজনৈতিক সভার আগে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল একটি প্রস্তুতি বৈঠক করে। যদিও অস্বস্তি বেড়েছে। কারণ এই প্রস্তুতি বৈঠকে গরহাজির ছিলেন পাড়ার বিধায়ক উমাপদ বাউরি। শুধু এই প্রথম নয়, এর আগেও দুটো বৈঠকে হাজির ছিলেন না তিনি। যার ফলে মুখ্যমন্ত্রীর জনসভার আগেই জল্পনার আগুনে আরও ঘি পরল। যদিও এ বিষয়ে উমাপদবাবুর বক্তব্য, তাঁর জ্বর থাকার জন্যই তিনি ওই বৈঠকে যেতে পারেননি।

পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা পুরুলিয়া জেলা পরিষদের শিক্ষা–সংস্কৃতি–তথ্য–ক্রীড়া স্থায়ী সমিতির কর্মাধ্যক্ষ গুরুপদ টুডু বলেন, “আগামী ১৯ জানুয়ারি পুরুলিয়া শহরে মুখ্যমন্ত্রীর জনসভায় লক্ষাধিক মানুষ আসবেন। সেই কারণেই আমরা একটি প্রস্তুতি বৈঠক করি। পাড়ার বিধায়কের অনুপস্থিতিতে আমি তাঁকে ফোন করেছিলাম। কিন্তু ফোনে পাইনি। বৈঠকে হাজির না থাকার বিষয়ে উনি আমাকেও কিছু জানাননি।”

১৯-এ পুরুলিয়ায় জনসভা মমতার, এদিকে আগামী ১০ জানুয়ারি কাশীপুরে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারির রোড শো ও জনসভা রয়েছে। ফলে পাড়ার বিধায়কের গরহাজির নিয়ে জেলার রাজনৈতিক মহলে নানান গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এদিন পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের নেতারা মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক সভার জন্য একাধিক মাঠ ঘুরে দেখেন। তারপরেই রাতে জে কে কলেজ মাঠকে প্রাথমিক ভাবে ওই সভার জন্য চূড়ান্ত করেন। দলের জেলা মুখপাত্র নবেন্দু মাহালি বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী পুরুলিয়া শহরে সভা করতে চেয়েছেন। তাই আমরা প্রাথমিক ভাবে জে কে কলেজের মাঠকে চূড়ান্ত করেছি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x