শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, CBI-এর মুখোমুখি জেলা পর্ষদের আধিকারিকরা

নজরবন্দি ব্যুরো: নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এবার সিবিআইয়ের নজরে রাজ্যের হুগলি জেলা। এই জেলা থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছিল অয়ন শীল, কুন্তল ঘোষ এবং শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তার প্রেক্ষিতেই এদিন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের হুগলি জেলার কয়েকজন আধিকারিককে এদিন নিজাম প্যালেসে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: Soumya Chakraborty: সারেগামাপা খ্যাত সৌম্যর বিরুদ্ধে এবার ধর্ষণের অভিযোগ তুলল প্রাক্তন স্ত্রী, কি বলছে গায়ক!

শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়
শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়

সিবিআই সূত্রে খবর, জেলা পর্ষদ আধিকারিকদের ২০১৪ সালের নিয়োগ সংক্রান্ত নথি আনতে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই তিনজন আধিকারিক সকাল ১০ টার মধ্যেই নিজাম প্যালেসে এসে পৌঁছেছেন। তদন্তকারীদের কাছে নথি জমা পড়েছে বলে খবর। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়
শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় হুগলির প্রোমোটার অয়ন শীল, বহিষ্কৃত নেতা কুন্তল ঘোষ এবং শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনজনের বিরুদ্ধেই টাকার বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ধৃতদের বিপুল সম্পত্তির হদিশ পেয়েছে ইডি। জানা গিয়েছে, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল হুগলির অয়ন শীলের। এই দুজনের মধ্যে মাধ্যম হিসেবে কাজ করতেন কুন্তল ঘোষ। অয়ন, কুন্তল, শান্তনু তিনজনকেই হুগলি জেলা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাই গোয়েন্দা সংস্থা জেলা পর্ষদ আধিকারিকদের ডেকে ২০১৪-র নিয়োগ সংক্রান্ত নথি খতিয়ে দেখে দুর্নীতির শিকড়ে যেতে চায়।

শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়
শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়

শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এদিনই তেহট্টের বিধায়ক তাপস সাহার প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক প্রবীর কয়ালকে ডেকে পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। ইতিমধ্যেই প্রবীর কয়াল নিজাম প্যালেসে পৌঁছেছেন। নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় তাপস সাহার ভূমিকা খতিয়ে দেখতে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে খবর। জানা গিয়েছে, প্রবীরের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে গত দুমাসে দু কোটিরও বেশি টাকা লেনদেন হয়েছে। চাকরি দেওয়ার নামে ৩০-৩৬ জনের কাছ থেকে টাকা তুলেছিলেন। সেই টাকা তাঁর মাধ্যমেই বিধায়কের কাছে গিয়েছে। এমনই দাবি করেছিলেন প্রবীর কয়াল। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিধায়ক তাপস সাহা।

শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়
শান্তনু, কুন্তল, অয়নদের উত্থান হুগলি থেকেই, নিয়োগ দুর্নীতি  মামলায় নয়া মোড়