Priyanka Chopra and Nick Jonas: সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে

সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে
সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে

নজরবন্দি ব্যুরোঃ  সারোগেসির মাধ্যমে কন্যাসন্তানের মা হলেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। কিন্তু এখনই প্রিয়ঙ্কা এবং তাঁর স্বামী নিক জোনাস তাঁদের সন্তানকে বাড়িতে আনতে পারবেন না। আরও বেশ কিছু দিন একরত্তিকে থাকতে হবে হাসপাতালে। চিকিৎসক সন্তান জন্মের তারিখ দিয়েছিলেন এপ্রিল মাসে। কিন্তু ১২ সপ্তাহ আগেই সন্তানের জন্ম দিয়েছেন সারোগেট মা। তার ফলে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকবে ‘নিয়ঙ্কা’র মেয়ে।

আরও পড়ুনঃ School Reopening: দ্রুত খুলছে স্কুল, জরুরি বৈঠকে রাজ্য সরকার

শনিবার মধ্যরাতে নিজের ইনস্টাগ্রামে মা হওয়ার খুশির খবর ভাগ করে নিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা। জানিয়েছেন, সারোগেসির মাধ্যমে সন্তান এসেছে তাঁদের কোলে। সকলের আশীর্বাদ প্রার্থনা করেছেন তারকা দম্পতি। একই সঙ্গে অনুরোধ, আপাতত তাঁদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বাড়তি কৌতূহল দেখানো যেন বন্ধ করেন সবাই। সুস্থ, সুন্দর সন্তান আসুক তাঁদের দাম্পত্যে।

বেশ কিছু দিন ধরেই নিক-প্রিয়ঙ্কা তাঁদের পরিবারে ছোট সদস্য আনার পরিকল্পনা করছিলেন। সূত্রের খবর, তারকা-দম্পতির ব্যস্ত জীবন তাতে খানিক বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। প্রিয়ঙ্কার শরীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অনুকূল থাকলেও ৪০-এর কোঠায় পৌঁছে যাওয়ায় কিছু সমস্যা হতে পারত। এই ভাবনা থেকেই সারোগেসির সাহায্য নিয়েছেন দম্পতি। যে মহিলা প্রিয়ঙ্কার সন্তান ধারণ করেছেন, সেই সারোগেট মা এই নিয়ে পঞ্চম বার অন্যের সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। মহিলার সঙ্গে দেখা হওয়ার পরেই তারকা-দম্পতির তাঁকে পছন্দ হয়ে যায়।

সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে

সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে
সারোগেসির মাধ্যমে মা হলেন প্রিয়ঙ্কা, কিন্তু এখনই সন্তানকে আনা যাবেনা বাড়িতে

সূত্র জানিয়েছে, এপ্রিল মাসে সন্তানের জন্ম হবে ভেবে একাধিক ছবির কাজ হাতে নিয়ে ফেলেছিলেন ‘দেশি গার্ল’। কিন্তু জানুয়ারিতেই ঘরে একরত্তি আসার ফলে সে সব পূর্ব-পরিকল্পিত কাজকর্মে বিরতি দিয়েছেন নতুন মা। পিছিয়ে দিয়েছেন ছবির কাজ। পরবর্তী কয়েক মাস তিনি কেবল মায়ের ভূমিকা পালন করবেন। নায়িকার নয়।