টিকা প্রাপকদের তালিকায় এক নম্বরে বিধায়কের নাম, শুরু হল নয়া বিতর্ক।

টিকা প্রাপকদের তালিকায় এক নম্বরে বিধায়কের নাম, শুরু হল নয়া বিতর্ক।

নজরবন্দি ব্যুরো: টিকা প্রাপকদের তালিকায় এক নম্বরে বিধায়কের নাম, করোনা টিকাকরণের পদাধিকারীদের অগ্রাধিকার থাকছে না। চিকিৎসক থেকে সাফাইকর্মী প্রত্যেককে সমান মর্যাদা দিয়ে তালিকা দেখে শনিবার দার্জিলিং জেলার পাঁচটি কেন্দ্রে প্রতিষেধক দেওয়ার কাজ শুরু হবে। তবে আলিপুরদুয়ারে করোনা টিকা প্রাপকদের তালিকায় এক নম্বরে বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তীর নাম। এক নম্বরে বিধায়কের নাম থাকায় তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে। আলিপুরদুয়ার জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সুমন কাঞ্জিলাল বলেন, “কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম ভেঙে বিধায়ককে প্রথমে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এটা মানা যায় না।”

আরও পড়ুন: বিশ্বের সবথেকে বড় টিকাকরণ ভারতে, দেশজুড়ে টিকাকরণের সূচনা প্রধানমন্ত্রীর

আলিপুরদুয়ার জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা গিরিশচন্দ্র বেরা বলেন, “আলিপুরদুয়ার জেলা সদর হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান হিসেবে বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তীর নাম টিকা দেওয়ার তালিকায় উঠেছে।” যদিও এই বিতর্কের পর বিধায়কের মন্তব্য জানা যায়নি। তিনি করোনা যোদ্ধা হিসাবে প্রথমে টিকা পেতেই পারেন বলে দাবি। দার্জিলিং জেলার জন্য যে ১৮ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন এসেছিল তাঁর মধ্যে প্রায় এক হাজার ডোজ সেনাবাহিনীর জন্য আলাদা রাখা হয়েছে। সেনার তরফ থেকে প্রতিষেধক চাওয়া হলে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত মার্চ থেকে চোখ রাঙাচ্ছে করোনা ভাইরাস। যার দাপটে গোটা বিশ্ব ত্রস্ত। লকডাউনের মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রমণ রোধ করার চেষ্টা করা হয়েছিল। তবে তার প্রভাবে প্রায় তলানিতে ঢেকেছিল অর্থনীতি। যার ফলে ধীরে ধীরে আনলক পর্যায়ের দিকে হাঁটে গোটা দেশ। সেই পর্যায়ে একটু একটু করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হয়। একাধিক সরকারি, বেসরকারি অফিস কিংবা ব্যবসা ক্ষেত্র খুলেছে। তবে এখনও বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। করোনাকে কীভাবে প্রতিহত করা সম্ভব, সে বিষয়ে দিশাহীন চিকিৎসকরাও। তাই মাস্ক, স্যানিটাইজারের ব্যবহার এবং দূরত্ববিধি মেনে চলার কথাই বলা হচ্ছিল বারবার।

টিকা প্রাপকদের তালিকায় এক নম্বরে বিধায়কের নাম, তার সঙ্গে টেস্টের উপরেও জোর দেওয়া হয়েছিল। আর ভ্যাকসিনের অপেক্ষায় দিন গুনছিলেন প্রায় সকলেই। শনিবারই শুরু হবে টিকাকরণ। প্রথম দফায় স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা দেওয়া হবে। ২৮ দিন পর আরও একবার তাঁদের টিকা দেওয়া হবে। দ্বিতীয় দফায় প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের টিকাকরণের কথা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x