নজরে মতুয়া ভোট, রাণাঘাটে হাইভোল্টেজ সভা মমতার

নজরে মতুয়া ভোট, রাণাঘাটে হাইভোল্টেজ সভা মমতার

নজরবন্দি ব্যুরো: নজরে মতুয়া ভোট, নজরে একুশের ভোট। সোমবার নদিয়ার রাণাঘাটে সভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে, এদিন দুপুরেই তাঁর হেলিকপ্টারে নদিয়ায় যাওয়ার কথা। সেখানে হবিবপুর ছাতিমতলার মাঠে সভা করবেন তৃণমূল নেত্রী। রাজনৈতিক ওয়াকিবহালের মতে, এই সভায় তিনি যে সিএএ নিয়ে কেন্দ্রকে আক্রমণ শানাবেন।

আরও পড়ুন: হু হু করে বাড়ছে বার্ড ফ্লু’র আতঙ্ক, আক্রান্ত রাজ্যের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯

প্রসঙ্গত, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে মতুয়া ও পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায় অধ্যুষিত এই রাণাঘাট আসন জিতেছিল বিজেপি। আর এবার সেই আসন ধরে রাখতে মরিয়া তৃণমূল। রাজনৈতিক মহলের মতে, গতবার নির্বাচনের সময় পরিস্থিতি ছিল সম্পূর্ণ আলাদা। সিএএ হবে এই আশাতেই সব মতুয়া ভোট গিয়েছিল পদ্মশিবিরে। কিন্তু মাঝখানে অনেকটা জল গড়িয়েছে। পরিস্থিতি অনেকটাই বদলে গেছে। সিএএ নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্য বিজেপির মধ্যে একটা অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। আর সেই ‘সুযোগ’টাই নিতে চেয়েছে ঘাসফুল শিবির।

তৃণমূল সূত্রের খবর, কমপক্ষে এক থেকে দেড় লক্ষ মানুষ এই সভায় উপস্থিত থাকবেন। রাণাঘাটের মানুষ বুঝবেন তাঁরা যে ভুল করেছিলেন, তা এবার আর করবেন না। পাশাপাশি, স্বাস্থ্যসাথী, খাদ্যসাথী থেকে শুরু করে সরকারি প্রকল্পের যে সুবিধা তা নিয়েও আলোকপাত করবেন মুখ্যমন্ত্রী। ফলে মানুষ নিজের ভাল বুঝতে পেরে আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূলকেই ভোট দেবেন। উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্নপ্রান্তে বেশ কিছু সভা করছেন তৃণমূল নেত্রী। যদিও তার পাল্টা সভা হিসেবে পরদিন সেখানেই সভা করছে বিজেপিও।

এদিকে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে ঘিরে রাজ্য-রাজনীতি জমে উঠেছে। এখন দেখার এদিন রাণাঘাটের সভা থেকে কী বার্তা দেন তৃণমূলনেত্রী। এই সভার পর এদিন বিকেলে আউট্রাম ঘাটে স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানাবেন। একইসঙ্গে শহরে দুটি দমকল কেন্দ্রও উদ্বোধন করার কথা রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। এছাড়া সোমবার বিকেলে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে ভারচুয়াল বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

নজরে মতুয়া ভোট, তাতে যোগ দেবেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও । আর তাই তিনি রানাঘাটে দলীয় কর্মসূচি সেরেই দ্রুত ফিরবেন নবান্নে। সেখান থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী ডাকা বৈঠকে। কারণ, আপাতত সেই আলোচনাই এই মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x