তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন স্ত্রী, পুলিশ সুপারের পদ থেকে সরানো হচ্ছে স্বামীকে!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন স্ত্রী লাভলি মৈত্র, তাই হাওড়া গ্রামীন পুলিশ সুপারের পদ থেকে সরানো হচ্ছে স্বামী সৌম্য কে! দুদিন আগেই তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাহাড়ের ৩ টি আসন বিমল গুরুং-দের ছেড়ে রাজ্যের বাকি ২৯১ টি আসনে প্রার্থী দিয়েছেন তিনি। যার মধ্যে একটি আসন সোনারপুর দক্ষিণ। এই আসনটিতে জোড়াফুল চিহ্নে টিকিট পেয়েছেন অভিনেত্রী লাভলি মৈত্র। আর সেই কারনেই কোপ পড়ল স্বামীর প্রশাসনিক পদে।

আরও পড়ুনঃ ২৯৪ আসনেই প্রার্থী তিনি! BJP-কে রুখতে নিজেকে বাজি রাখলেন মমতা।

তৃণমূল প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই হাওড়া গ্রামীনের পুলিশ সুপার সৌম্য রায়ের ওপর চাপ আসছিল। রাজ্যের প্রায় সব বিরোধী পক্ষই দাবি তুলেছিল নির্বাচন কালে যেন পুলিশ সুপারের দায়িত্বে না থাকে সৌম্য। একাধিক অভিযোগ জমা পড়ে কমিশনের দফতরে। সেই দাবিকে মান্যতা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। শুরু হয়ে গিয়েছে হাওড়া গ্রামীনের পুলিশ সুপার কে সরানোর কাজ।

উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জল নূপুর খ্যাত অভিনেত্রী লাভলি মৈত্র কে টিকিট দেওয়ার পরেই সরব হয় বিজেপি। তাঁরা প্রশ্ন তোলে, লাভলির স্বামী পেশায় IPS অফিসার, আর সেই প্রেক্ষিতেই একজন সরকারি আমলার স্ত্রী হয়ে কীভাবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার টিকিট পেতে পারেন তিনি! আর সেটাই বা নির্বাচনী-নীতি অনুযায়ী কতটা যুক্তিসঙ্গত? এরপরেই সৌম্য কে পুলিশ সুপারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, আজ নারী দিবসে মুখ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে বিরাট মিছিল করে তৃণমূল। কলেজ স্ট্রিট থেকে ডেরিনা ক্রশিং পর্যন্ত সুবিশাল মিছিলে অংশ নেন লক্ষাধিক তৃণমূল সমর্থক। সেই মিছিলে হাঁটেন লাভলিও। তিনি বলেন, “প্রণাম জানাই দিদিকে, দেশের একমাত্র মহিলা মুখ্যমন্ত্রী। বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়।” পাশাপাশি বিজেপি সমালোচনা করে লাভলি বলেন, “যতই নাড়ো কলকাঠি, নবান্নে আবার হাওয়াই চটি।”

প্রসঙ্গত, এদিনের মিছিলে জনসমর্থন দেখে আপ্লুর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন। এই মিছিলে যা লোক হয়েছে মোদীর ব্রিগেডে তত লোক হয়নি। ওটা ব্রিগেড হয়নি বি গ্রেড হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন জানিয়ে দেন তিনিই ২৯৪টা কেন্দ্রের প্রার্থী। যদি তাঁকে ভালবাসেন তাহলে তৃণমূল কে ভোট দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here