Lalu Prasad Yadav: সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর

সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর
CBI's New Corruption Case Against Lalu Yadav, Family Members, Searches at 15 locations linked to RJD

নজরবন্দি ব্যুরোঃ পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় জামিন পাওয়ার কয়েক দিনের মধ্যেই লালুপ্রসাদ যাদবের বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ। পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দায়ে অভিযুক্ত পাঁচটি মামলার সব ক’টিতেই গত মাসে জামিন পেয়েছেন তিনি (Lalu Prasad Yadav)। হাসপাতাল থেকেও ছাড়া পেয়েছেন। তবে বাড়ি ফিরলেও বলতে গেলে শয্যাশায়ী। সেই লালুপ্রসাদের বিরুদ্ধে নতুন করে অভিযান শুরু করল সিবিআই।

আরও পড়ুনঃ আজ ফের সকালেই CBI দপ্তরে মন্ত্রী পরেশ অধিকারী, কি প্রশ্ন করলেন তদন্তকারী অফিসাররা

বিহার এবং দিল্লি মিলিয়ে মোট ১৬ জায়গায় তল্লাশি শুরু করেছে তারা। গতকাল থেকে শুরু হওয়া তল্লাশি আজও চলছে। শুধু লালুপ্রসাদই নন, নয়া মামলায় নাম রয়েছে তাঁর বড় মেয়ে রাজ্যসভার সাংসদ মিসা ভারতীরও (Misa Bharti)। অসুস্থতার জন্য নয়াদিল্লির এমসে ভর্তি করানো হয়েছিল লালুকে। এমস ছেড়ে দেওয়ার পর দিল্লিতে মেয়ে মিসা ভারতীর বাড়িতে ছিলেন প্রবীণ রাজনীতিক। এর মধ্যেই ফের নয়া মামলায় তাঁর বিপদ বাড়ল বলেই মনে করা হচ্ছে।

সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর
সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় জামিন নিয়ে মাস খানেক আগে জেল থেকে বাড়ি ফিরেছেন লালু। বিশেষ সিবিআই আদালত গত ফেব্রুয়ারি মাসে লালুকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড এবং ৬০ লক্ষ টাকা জরিমানা করে। গত মাসে এই মামলায় ঝাড়খণ্ড হাই কোর্ট থেকে জামিন পান বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। এ বার আরও এক মামলার মুখোমুখি হলেন ৭৩ বছর বয়সি লালু।

কী অভিযোগ বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাষ্ট্রীয় জনতা দল সুপ্রিমো লালুপ্রসাদের (Lalu Prasad Yadav) বিরুদ্ধে? সিবিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে, বিভিন্ন সময় বিহারে একটি চক্র সক্রিয় ছিল যারা মানুষের কাছ থেকে সরকারি প্রকল্পের নামে জমি নিয়েছে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে। কিন্তু চাকরি হয়নি। জমিও হাতছাড়া হয়ে গিয়েছে।

জানা যাচ্ছে, লালুপ্রসাদ যাদব রেলমন্ত্রী থাকাকালে এই চক্র অনেক বেশি সক্রিয় ছিল। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, লালুপ্রসাদ এবং তাঁর মেয়ের ঘনিষ্ঠদের কাছ থেকে আশ্বাস পেয়েই জমি দিয়েছিলেন তাঁরা। বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী সিবিআইয়ের কাছে নালিশ ঠোকে। বিজেপির সমর্থনে চলা নীতীশ কুমারের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকার ওই মামলায় তদন্তে সাধারণ সম্মতি বা জেনারেল কনসেন্ট দেয় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে।

সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর

সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর
সকন্যা লালুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির নয়া অভিযোগ, ১৬টি জায়গায় ফের তল্লাশি সিবিআই-এর

৯৫০ কোটি টাকার পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দায় নিয়ে গত বছর পঁচিশ লালুপ্রসাদের সঙ্গে আদালত, সিবিআইয়ের সঙ্গে টানাপোড়েন চলছে। বহুবার জেলে গিয়েছেন। এমনকী নির্বাচনে প্রার্থী হওয়াও আটকে গিয়েছে পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির মামলায় যুক্ত থাকার দায়ে। এবার নয়া মামলা কত দূর গড়ায় সেটাই দেখার। তবে সিবিআই এখনও লালুপ্রসাদ (Lalu Prasad Yadav) এবং তাঁর মেয়েকে জেরা করেনি।