করোনা ভুলে তুমুল সংঘর্ষ তৃণমূল-BJP এজেন্টদের, ভেস্তে গেলো কমিশনের ডাকা বৈঠক

করোনা ভুলে তুমুল সংঘর্ষ তৃণমূল-BJP এজেন্টদের, ভেস্তে গেলো কমিশনের ডাকা বৈঠক,
করোনা ভুলে তুমুল সংঘর্ষ তৃণমূল-BJP এজেন্টদের, ভেস্তে গেলো কমিশনের ডাকা বৈঠক,

নজরবন্দি ব্যুরোঃ করোনা ভুলে তুমুল সংঘর্ষ তৃণমূল-BJP এজেন্টদের, বৈঠক ডেকেছিলো কমিশন,কারণ কাল ফলাফল রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের। কিন্তু উভয় দলের এজেন্টদের ঝামেলায় শেষ পর্যন্ত ভেস্তে গেলো বৈঠক। পরিস্থিতি সামাল দিতে নাকানি চোবানি খেলো পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে পুর্ব বর্ধমানের কাটোয়াতে।

আরও পড়ুনঃ বেড নেই, শ্বাসকষ্ট নিয়ে অপেক্ষায় থেকে গাড়িতেই মৃত্যু তরুণীর।

আগামী কালের প্রস্তুতি চলছে গোটা রাজ্য জুড়ে। গত এক মাসের ৮ দফার ভোটের ফলাফল কাল। আশাবাদী তৃণমূল বিজেপি উভয় দলের সমর্থক নেতা মন্ত্রী সকলেই। তার মধ্যেই বাংলায় হুহু করে বাড়ছে করোনা। করোনার বিধি নিষেধ এবং কড়া নিরাপত্তা নিয়েই কাল গণনা হবে। ইতিমধ্যেই এই কঠিন পরিস্থিতিতে দূরত্ব মেনে নিয়ম কানুন পালনের জন্য কমিশিনের তরফ থেকে একাধিক নিয়মাবলি দেওয়া হয়েছে গতকাল।

সুষ্ঠ ভাবে গণনা কার্য সম্পন্ন করার জন্য আজ শনিবার কাটোয়া কলেজে কাটোয়া মহকুমা এলাকার তিনটি বিধানসভা কেন্দ্র কেতুগ্রাম, মঙ্গলকোট এবং কাটোয়ার এজেন্টদের নিয়ে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে বৈঠক ডাকা হয়েছিল। কাল যাতে গণনায় কোন অসুবিধে- অশান্তি না হয়, তা নিয়েই আজ বুঝিয়ে দেওয়ার কথা ছিলো সবকিছু।  সূত্রের খবর আজ দুপুর ১২ টা নাগাদ কাটোয়া সংহতি মঞ্চে ডাকা হয় ওই বৈঠক। কয়েকঘন্টা বৈঠক চলার পরেই শুরু হয় বচসা। বিশাল পুলিশ বাহিনী হিমসিম খায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে।

স্থানীয় সূত্রে মারফত জানা গিয়েছে, বাক-বিতন্ডা শুরু হয় দুজনের মধ্যে।  কেতুগ্রামের বিজেপি প্রার্থী মথুরা ঘোষ এবং কাটোয়া পুরসভা ১২ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর সুদিপ্তময় ঘোষ প্রথমে বচসায় জড়িয়ে পড়েন। তারপরেই দু’দলের এজেন্টদের মধ্যে শুরু হয় বচসা ও হাতাহাতি। সেখানেও না থেমে ঝামেলা গড়িয়ে যায় রাস্তায়। দুই দলের এজেন্টরা লাঠি সোটা নিয়ে একে অপরের দিকে তেড়ে যান বলেও খবর। পরিস্থিতি সামাল দিতে তৎক্ষণাৎ বিশাল পুলিশ বাহিনি উপস্থিত হয় ঘটনাস্থলে।

পুলিশের সামনেই করোনার বিধি নিষেধ ভুলে চলতে থাকে তরজা। ঘটনার প্রেক্ষিতে  কেতুগ্রামের বিজেপি প্রার্থী মথুরা ঘোষের অভিযোগ, “বৈঠকের সময় মধ্যাহ্নভোজের বিরতি নিয়ে যখন মতামত নেওয়া হচ্ছিল তখন আমাদের বলতে বাধা দেয় তৃণমূলের লোকজন। আমরা মিটিং ছেড়ে বেড়িয়ে আসছিলাম। তখন আমাদের ওপর লাঠিসোঁটা নিয়ে চড়াও হয়। মারধর করে।”  অন্যদিকে অভিযোগ করেছে তৃণমূলও।

তৃণমূল কংগ্রেসের এক কাউন্টিং এজেন্ট তথা প্রাক্তন কাউন্সিলর সুদীপ্তময় ঘোষের অভিযোগ, “বৈঠকে আলোচনার সময় আমার ওপর বিজেপি প্রার্থী মথুরা ঘোষ ও তাঁর দলের লোকজন চড়াও হয়। তা থেকেই এই ঝামেলা বাধে।” দুই দলই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। তবে এই চরম সংকট কালে এতো এজেন্ট নিয়ে একসঙ্গে বৈঠক করা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here