কেন ঋদ্ধির আগে ফার্স্ট চয়েস ছিলেন পান্থ, মুখ খুললেন স্বয়ং ‘সুপারম্যান’ ঋদ্ধিমান।

কেন ঋদ্ধির আগে ফার্স্ট চয়েস ছিলেন পান্থ, মুখ খুললেন স্বয়ং ‘সুপারম্যান’ ঋদ্ধিমান।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ কেন ঋদ্ধির আগে ফার্স্ট চয়েস ছিলেন পান্থ, মুখ খুললেন স্বয়ং ‘সুপারম্যান’ ঋদ্ধিমান। কিপিং এ তিনি সুপারম্যান। অসাধারণ ক্যাচিং এবং রিফ্লেক্স দুইয়ের অনবদ্য মিশেল হলেন বাংলা তথা ভারতীয় দলের উইকেটকিপার ঋদ্ধিমান সাহা। গোটা বিশ্বের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা একবাক্যে স্বীকার করে উইকেটকিপিং এ বর্তমানে গোটা বিশ্বের সেরা ঋদ্ধি। তবে বিদেশে তিনি দলের অটোমেটিক চয়েস নন। তাঁর জায়গা দখল করেছেন তরুন তুর্কি রিশভ পান্থ।

আরও পড়ুনঃ পরাক্রম দিবসে ‘জয় শ্রী রাম’, তীব্র নিন্দা সেলিমের

৮ মাস পরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে বিদেশের মাটিতে প্রথম টেস্টেই জায়গা দেওয়া হয়েছিল ঋদ্ধিমান সাহাকে। কিন্তু পরের টেস্ট থেকেই দল থেকে বাদ পরেন ও জায়গা পান রিশভ পান্থ। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। গত অস্ট্রেলীয় সফরেও দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন তিনি।।এবারেও দলের সিরিজ জয়ের অন্যতম স্থপতি। কিন্তু মাত্র একটি টেস্ট খেলে কেন বসিয়ে দেওয়া হল ঋদ্ধিকে। জবাব দিয়েছেন স্বয়ং ঋদ্ধি। তাঁর খোলামেলা জবাব  ‘ব্যাট হাতে রান করতে পারিনি। তাই ঋষভকে চান্স দেওয়া হয়। আমার বাদ পড়ার কারণ এতটাই সহজ। আমি সবসময়েই নিজের স্কিলের প্রতি ফোকাস করে গিয়েছি। সেটা এখনো লক্ষ্য।’

প্রসঙ্গত প্রথম টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ১৩ রান করেন ঋদ্ধি। তবে ব্যাটিং ই যে ঋদ্ধিকে বার বার লড়াইয়ে পিছিয়ে দিচ্ছে তা বলাই বাহুল্য। একদিকে ঋদ্ধির রানের খরা অন্যদিকে পান্থ একাই প্রায় জিতিয়ে দিচ্ছেন টেস্ট। প্রায় ওয়ান ম্যান আর্মি হিসেবে দলকে ব্যাটিং দিয়ে টেনে নিয়ে যান পান্থ। সিডনি টেস্টে একাই তিনি জেতার মত পরিস্থিতি তৈরি করেন। চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ঝোড়ো ৯৭ করেছিলেন তিনি। তবে ঋষভ আউট হয়ে যেতেই হনুমা বিহারি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন দলকে নিরাপদে ড্রয়ের দিকে পৌঁছে দেন। সিডনির পর ব্রিসবেনেও পন্থের ব্যাট জ্বলে ওঠে। তার ইনিংসে ভর করেই জেতে ভারত। বিশাল রান তাড়া করতে নেমে পন্থ ১৩৮ বলে ৮৯ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন।

কেন ঋদ্ধির আগে ফার্স্ট চয়েস ছিলেন পান্থ, মুখ খুললেন স্বয়ং ‘সুপারম্যান’ ঋদ্ধিমান। গোটা সিরিজে এবার তিনিই সবথেকে বেশি রান সংগ্রহকারী ভারতীয়দের মধ্যে। করেছেন ২৭৪ রান। তাই ম্যাচ জেতানোর নিরিখে ঋদ্ধির থেকে বর্তমানে কয়েক মাইল এগিয়ে পান্থ তা বলাই যায়। পন্থের এই দুরন্ত ফর্মের কারণে ইংল্যান্ড সিরিজে ফের একবার সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ফেরার বড় দাবিদার। সেইসঙ্গে দেশের মাটিতেও তাঁকে ইংরেজদের বিপক্ষে টেস্টে উইকেটের পিছনে দেখা যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x