মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।

মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।
মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! পূর্বের প্রতিশ্রুতি মত ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর। ভোটের প্রচারে নন্দীগ্রামের প্রত্যেক বাসিন্দার জন্যে পরিশ্রুত পানীয় জলের ব্যাবস্থা করবেন বলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জিততে পারেননি সেই কেন্দ্রে। যুযুধান প্রতিপক্ষ শুভেন্দু অধিকারীর কাছে অল্প ভোটের ব্যাবধানে পরাজিত হয়েছেন। তবে কথা রাখলেন মমতা।

আরও পড়ুনঃ শুক্রবার থেকেই চলতে পারে লোকাল ট্রেন, সার্বিক ভাবে প্রস্তুত পূর্ব রেল।

মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী নন্দীগ্রাম বিধানসভা এলাকায় পানীয় জল প্রকল্প গড়ে তুলবে এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাঙ্ক। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। কাজ শুরু করে দিয়েছে জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর। নন্দীগ্রামে এই পরিশ্রুত জল প্রকল্পের জন্যে বরাদ্দ করা হয়েছে ৯০০ কোটি টাকা।

তবে শুধু নন্দীগ্রাম নয়। আর্সেনিকমুক্ত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার ব্যাবস্থা করা হয়েছে নন্দীগ্রাম ছাড়াও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়, উত্তর ২৪ পরগনার হিঙ্গলগঞ্জে। সার্বিক ভাবে প্রকল্প রূপায়নের জন্যে বরাদ্দ করা হয়েছে ২১০০ কোটি টাকা।

মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! পূর্বের প্রতিশ্রুতি মত ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।

মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।
মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! ৯০০ কোটির পানীয় জল প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রীর।

মুখ ফিরিয়েছে নন্দীগ্রাম, মমতা নন! উল্লেখ্য, নন্দীগ্রাম কেন্দ্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরাজিত হলেও সেই পরাজয় নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। মমতা জয়ী ঘোষণার পরেও নন্দীগ্রাম পুনর্গণনায় এগিয়ে যান শুভেন্দু। ২রা মে সকালবেলা গননা শুরুর পর থেকেই সাপলুডোর খেলা চলে সবথেকে হাইভোল্টেজ আসন নন্দীগ্রামে।

একবার শুভেন্দু এগিয়ে যাচ্ছেন তো একবার তৃনমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গণনার দিন বিকেল ৫ টা নাগাত ১৭ রাউন্ড গণনার পর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয় হাইভোল্টেজ লড়াইয়ে অবশেষে জিতলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীকে হারিয়েছেন ১২০০ ভোটে।

তারপর ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ফের মহানাটকীয় পরিবর্তন। শুভেন্দুর ফের গণনার দাবি মেনে গণনা করা হলে দেখা যায় ১৯২২ ভোটে এগিয়ে শুভেন্দু। কিছুক্ষণ পরই শুভেন্দু অধিকারীকে জয়ী ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার। গোটা বিষয়টি নিয়ে কারচুপির অভিযোগ তোলে তৃণমূল। তা নিয়েই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চলছে মামলা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here