তাড়াতাড়ি মিটুক বিধানসভা-রাজ্যসভার উপনির্বাচন, কমিশনের দরজায় তৃণমূল

তাড়াতাড়ি মিটুক বিধানসভা-রাজ্যসভার উপনির্বাচন, কমিশনের দরজায় তৃণমূল
তাড়াতাড়ি মিটুক বিধানসভা-রাজ্যসভার উপনির্বাচন, কমিশনের দরজায় তৃণমূল

নজরবন্দি ব্যুরোঃ তাড়াতাড়ি মিটুক উপনির্বাচন, সেই দাবি নিয়ে এবার নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হোল রাজ্যের শাসক দল অর্থাৎ তৃণমূল কংগ্রেস। বাংলায় ২১ এর নির্বাচন ফুরিয়েছে মাস খানেক আগেই। ফলাফল প্রকাসের পর সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে তৃতীয় বারের জন্য সরকার গড়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মা-মাটি মানুষের সরকার। ভোটে হেরেও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

আরও পড়ুনঃ লড়াই লড়ে হাসপাতাল থেকে ফিরছেন সস্ত্রীক বুদ্ধদেব, বাড়ির বদলে যাবেন সেফহোমে

এবার দ্রুত উপনির্বাচনের জয় দরবার করলো শাসক দল। রাজ্যে এই মুহুর্তে মোট ৬ টি বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে। তার মধ্যে ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে বিধায়ক শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের পদত্যাগের পর সেখান থেকে নির্বাচন লড়বেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে শোভনদেব লড়বেন খড়দাহ থেকে। জয়ী বিধায়ক কাজল সিনহার মৃত্যুর পর সেই জায়গায় ফের উপনির্বাচন হবে। করোনার প্রকোপ কিছুতা কমলেই যাতে যেই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় তার আবেদন জানানো হয়েছে দলের পক্ষ থেকে।

সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানানো হয়েছে বিধানসভার পাশাপাশি রাজ্যসভার যে কটি আসন খালি আছে সেগুলির ভোটও শেষ করতে চায় দল। নির্বাচনের আগে তৃণমূলে থেকে দমবন্ধের কারণে ইস্তফা দিয়ে দলত্যাগ করেছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী, অন্যদিকে রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে ভোট লড়েছিলেন মানস ভুঁইয়া। এই মুহুর্তে রাজ্যের জয়ী বিধায়ক তিনি। ওই দুই আসনের জন্য ভোট করতে হবে। যেহেতু রাজ্যসভার ভোট বিধায়করা দেবেন বিধানসভা ভবনে তাই করোনা কালেও এই নির্বাচনে অসুবিধে হবেনা বলেই জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here