স্বচ্ছতার গ্রাফ নিম্নমুখী! হাল ফেরাতে সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে একগুচ্ছ কাজ করবে বিজেপি

স্বচ্ছতার গ্রাফ নিম্নমুখী! হাল ফেরাতে সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে একগুচ্ছ কাজ করবে বিজেপি
স্বচ্ছতার গ্রাফ নিম্নমুখী! হাল ফেরাতে সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে একগুচ্ছ কাজ করবে বিজেপি

নজরবন্দি ব্যুরোঃ স্বচ্ছতার গ্রাফ নিম্নমুখী! গত এক বছরের করোনা মোকাবিলা থেকে কৃষক আন্দোলন একাধিক ক্ষেত্রে বারবার মুখ পুড়েছে কেন্দ্র সরকারের। দেশের অবিজেপি দলগুলি বা বিদেশের পত্রিকা, বারবার কড়া সমালোচনা করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকারের। করোনার দ্বিতিয় ঢেউয়ের মাঝে বেসামাল পরিস্থিতির কারন হিসেবেও কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছে কেন্দ্র সরকারকে।

আরও পড়ুনঃ ঝিমুনি কাটিয়ে কথা বলছেন, নলের যাহায্য ছাড়াই খাবার খাচ্ছেন বুদ্ধবাবু

স্লোগান উঠেছে একাধিক জায়গায় করোনার দ্বিতিয় ঢেয় ‘মোদি মেড’। অন্যদিকে ক্ষমতার অবনতিও ঘটেছে। বিজেপি শাসিত একাধিক জায়গায় বসেছে রথের চাকা। রামের জন্মভুমি অযোধ্যা, শ্রীকৃষ্ণের জন্মভুমি মথুরা, খোদ প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনি কেন্দ্র বারাণসী সব জায়গাতেই পঞ্চায়েত নির্বাচন হেরেছে বিজেপি। বাংলায় লোকসভা নির্বাচনে বিরধী দল হিসেবে উঠে আসে বিজেপি, বিধানসভায় ক্ষমতা কায়েমের আত্মবিশ্বাস নিয়ে ঘুরলেও, কার্যত সেই বিরোধী দলেই আটকে গেছে গেরুয়া শিবির।

আত্মপক্ষ পর্যালোচনা করতে গিয়ে গেরুয়া শিবিরের দলের অন্দরেই অনেক বলছেন, মানুষের কাছে নতুন করে গ্রহণ যোগ্যতা তৈরির বদলে হারাচ্ছে নেতা মন্ত্রীরা। অন্যদিকে করনা মকাবিলায় প্রায় সব পক্ষ জানিয়েছে একপ্রকার ব্যার্থ মোদি সরকার। প্রথম ঢেউয়ের পর কুম্ভ মেলা থেকে টিকার হাহাকার, অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু মিছিল, সব মিলিয়ে দেশের পরিস্থিতির মতোই বিপর্যস্ত অবস্থা দলেরও। তার মাঝেই দেশ জুড়ে চলেছে কৃষক আন্দোলন। কৃষি বিল আইনের প্রতিবাদে সেই সময় কৃষকদের পাশেই দাঁড়িয়েছে সব পক্ষ। সেখানেও মুখ পুড়েছে কেন্দ্রের।

স্বচ্ছতার গ্রাফ নিম্নমুখী!  সুত্রের খবর বারবার একই পরিণতির পর এবার দলের ভাবমুর্তি আর গ্রহনযোগ্যতার গ্রাফ উর্ধমূখী করতে মোদি সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তিতে দেশ জুড়ে এক গুচ্ছ কাজ করাবে গেরুয়া শিবির। দেশের সকল গেরুয়া শিবিরের নেতা কর্মীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ভাবমুর্তি ফিরিয়ে আনতে মাঠে ময়দানে নেমে কাজ শুরু করুক সকলে। মোদী সরকারের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ৩০মে প্রায় ১ লক্ষ গ্রামে ত্রাণকাজ চালাবে তারা।

বিজেপি সভাপতি জে পি নড্ডা জানিয়েছেন তার সঙ্গেই ৫০ হাজার রক্তদান শিবিেরর পরিকল্পনা নিয়েছে দল। সঙ্গে গ্রামের মানুষদের হাতে  স্যানিটাইজার, শুকনো খাবার তুলে দেওয়া হবে। যদিও বিজেপির এই উদ্যোগকে ওয়াকিবহাল মহল আগামী বছর উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত, পঞ্জাবের বিধানসভা নির্বাচনের আগের প্রস্তুতি বলেই মনে করছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here