প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের অন্তর্দ্বন্দ্ব, হক্কানির নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার বরাদরের

প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের অন্তর্দ্বন্দ্ব, হক্কানির নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার বরাদরের

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের (Taliban) অন্তর্দ্বন্দ্ব। আনুষ্ঠানিকভাবে সরকার গঠন না হলেও শীর্ষ স্তরের দায়িত্বে থাকা দুই নেতার মধ্যে শুরু হয়েছে ব্যাপক সংঘাত। খলিল হক্কানির (Khalil Haqqani) সঙ্গে সংঘাতের পরেই কাবুল ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন মোল্লা আবদুল ঘানি বরাদর (Abdul Ghani Baradar)।

আরও পড়ুনঃ শারদ ও বিজয়ার শুভেচ্ছা জানাতে ৬ দিন স্কুলে যাওয়ার নির্দেশ, তুমুল বিক্ষুব্ধ শিক্ষক মহল।

প্রায় মাসখানেক কাবুল মুখী হননি তিনি। সূত্রের খবর অবশেষে তিনি ফিরেছেন আফগানিস্তানের রাজধানীতে। তবে তার সঙ্গে আছে নিজস্ব রক্ষীবাহিনী। আইএসআই মদতপুষ্ট ‘হাক্কানি নেটওয়ার্ক’-এর প্রধান সিরাজউদ্দিন হাক্কানির অনুরোধ সত্বেও তাদের নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার করে বরাদর।

প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের অন্তর্দ্বন্দ্ব, হক্কানির নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার বরাদরের

বলে রাখা ভাল, কাবুলের দায়িত্বে রয়েছে হাক্কানিরা। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকও রয়েছে পাকিস্তানের মদতপুষ্ট ওই গোষ্ঠীর হাতে। ফলে বিশ্লেষকদের মতে, হাক্কানিদের উপর মোটেও ভরসা করতে পারছে না আখুন্দজাদা গোষ্ঠী।

প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের অন্তর্দ্বন্দ্ব, হক্কানির নিরাপত্তা নিতে অস্বীকার বরাদরের

এখনও কান্দাহারে রয়েছে তালিবানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তথা জেহাদি সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা মোল্লা ওমরের ছেলে মোল্লা ইয়াকুব (Mullah Yaqub)। কিছুদিন আগে সংঘাত একেবারে প্রকাশ্যে চলে আসে। রীতি মতো হাতাহাতি, গোলাগুলির পর্যায়ের পৌঁছে যায় বরাদর-হাক্কানির সংঘাত।

প্রকাশ্যে এসেছে তালিবানের অন্তর্দ্বন্দ্ব

কার হাতে বেশি ক্ষমতা? এই নিয়েই সংঘাতের সূত্রপাত। এমনকি কাবুলে প্রেসিডেন্টের ভবনের ভিতর থেকে গোলাগুলির শব্দও শোনা গিয়েছিল। শোনা যায় আহত হয়েছিলেন বরাদর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here